ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ওরাকলের ২০১৯ অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিকের ফলাফল ঘোষণা

মনিরুল হক ফিরোজ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৩-২৩ ৭:২২:০০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৩-২৩ ৭:২২:০০ পিএম

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ওরাকল কর্পোরেশন সম্প্রতি ২০১৯ অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিকের ফলাফল ঘোষণা করেছে। এতে দেখা যায়, প্রতিষ্ঠানটির মোট আয় হয়েছে ৯.৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার যা গতবছরের তৃতীয় প্রান্তিকের তুলনায় মার্কিন ডলারে ১ শতাংশ কমলেও কন্সটেন্ট কারেন্সিতে বেড়েছে ৩ শতাংশ।

ক্লাউড সার্ভিস ও লাইসেন্স সাপোর্ট থেকে ৬.৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং ক্লাউড লাইসেন্স ও অন-প্রিমিজ লাইসেন্স থেকে ১.৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করেছে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানটি। মোট ক্লাউড সার্ভিস ও লাইসেন্স সাপোর্ট সেইসঙ্গে ক্লাউড লাইসেন্স এবং অন-প্রিমিজ লাইসেন্স থেকে মোট আয় ছিল ৭.৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা মার্কিন ডলারে অপরিবর্তিত থাকলেও কন্সটেন্ট কারেন্সিতে ৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির জিএএপি (জেনারেলি অ্যাক্সেপ্টেড অ্যাকাউন্টিং প্রিন্সিপালস) অপারেটিং আয় ৩ শতাংশ বেড়ে দাড়িয়েছে ৩.৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার যেখানে জিএএপি অপারেটিং মার্জিন ছিল ৩৫%। অন্যদিকে নন-জিএএপি অপারেটিং আয় ২ শতাংশ বেড়ে ৪.৩ বিলিয়ন ডলার হয়েছে যেখানে নন-জিএএপি অপারেটিং মার্জিন ছিল ৪৪%। জিএএপি মোট আয় ২.৭ বিলিয়ন ডলার বৃদ্ধি পেলেও নন-জিএএপি মোট আয় ৮ শতাংশ কমে ৩.২ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। শেয়ার প্রতি জিএএপি আয় ০.৭৬ মার্কিন ডলার বেড়েছে যেখানে নন-জিএএপি আয় ৮% বেড়ে ০.৮৭ মার্কিন ডলার হয়েছে।

স্বল্প মেয়াদী বিলম্বিত রাজস্ব গত এক বছরের তুলনায় এক শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ৮.০ বিলিয়ন ডলার হয়েছে। অপারেটিং মুদ্রা সরবরাহ বিগত ১২ মাসে ১৪.৮ বিলিয়ন ডলারে গিয়ে দাঁড়িয়েছে।

ওরাকলের সিইও সাফরা কাটজ এ সম্পর্কে বলেন, ‘তৃতীয় প্রান্তিকের নন-জিএএপি’র ফলাফলে আমি আনন্দিত কারণ এ সময়ে কন্সটেন্ট কারেন্সিতে আমাদের রাজস্ব আয় ৩ শতাংশ, অপারেটিং আয় ৫ শতাংশ এবং ইপিএস ১২ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। সবমিলিয়ে আমাদের অপারেটিং মার্জিন ৪৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে যেখানে আমাদের লোয়ার মার্জিন হার্ডওয়্যার বিজনেস ক্রমাগতভাবে সংকীর্ণ হয়ে আসছে এবং হাইয়ার মার্জিন ক্লাউড বিজনেস প্রতিনিয়ত বড় হচ্ছে। বছরের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত নন-জিএএপি ইপিএস বৃদ্ধির হার কন্সটেন্ট কারেন্সিতে ১৬ শতাংশ, যা আমাদেরকে ডাবল ডিজিট ইপিএস গ্রোথের আরেকটি বছর স্বাচ্ছন্দেই পাড়ি দিতে সাহায্য করবে।’

ওরাকলের সিইও মার্ক হার্ড জানান, এই বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে আমাদের ফিউশন এইচসিএম, ইআরপি, সাপ্লাই চেইন এবং ম্যানুফ্যাকচারিং ক্লাউড অ্যাপ্লিকেশন থেকে মোট ৩২ শতাংশ আয় বেড়েছে। তিনি আরো জানান, নেট স্যুট ইআরপি ক্লাউড অ্যাপ্লিকেশনের রাজস্ব বৃদ্ধি হয়েছে ৩০ শতাংশ।

আইডিসি এর সর্বশেষ বার্ষিক মার্কেট শেয়ার ফলাফল অনুসারে ওরাকল মার্কেট শেয়ার এবং রাজস্বের ভিত্তিতে আমেরিকার সেরা অ্যাপ্লিকেশন এন্টারপ্রাইজ ভেন্ডর হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৩ মার্চ ২০১৯/ফিরোজ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন