ঢাকা, শনিবার, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

উবারে যুক্ত হচ্ছে ‘কোয়াইট মোড’

মো. রায়হান কবির : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-১৫ ২:০২:৫৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-১৫ ২:০২:৫৩ পিএম

মো. রায়হান কবির : রাইড শেয়ারিং অ্যাপ উবার একটি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটি তাদের আন্তর্জাতিক অ্যাপে যুক্ত করতে যাচ্ছে কোয়াইট মোড। যদিও এই অপশন এখনো বাংলাদেশে আসেনি। উবার মূলত গাড়ির জন্যই বিখ্যাত। বাংলাদেশে উবারের মোটো এবং উবার ইটসও চালু আছে।

অনেক সময়ই গাড়ির ড্রাইভার অকারণে বকবক করতে থাকে। যেটা অনেক সময় বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। মানুষের বাঁচাল স্বভাবের বিরুদ্ধে আসলে অভিযোগও করার থাকেনা। তাই উবার এনেছে উবার কোয়াইট মোড। এই অপশনে গাড়ি ভাড়া করলে ড্রাইভার আপনার সঙ্গে কোনো কথা বলতে পারবেনা। তবে আপনি চাইলে অ্যাপের মাধ্যমেই তাকে বিভিন্ন নির্দেশনা দিতে পারবেন। যেমন আপনার যদি গাড়ির এসি’র তাপমাত্রা বাড়াতে বা কমাতে হয়, আপনি চাইলে অ্যাপের মাধ্যমেই তাকে বলতে পারবেন। ড্রাইভার বিনা বাক্য ব্যয়ে তা পালন করবে। অথবা আপনার ব্যাগ ব্যাগেজ ওঠা-নামা করাতে তার সাহায্য লাগবে, সেটাও আপনি অ্যাপের মাধ্যমেই বলতে পারবেন।

অর্থাৎ কোয়াইট বা শান্ত মোড একেবারেই শব্দহীন সেবা। যারা অযথা কথা শুনতে অপছন্দ করেন তাদের জন্য একদম দারুন একটি পরিষেবা। এটা উবারের প্রিমিয়ার সার্ভিসের একটি অংশ। উবার ব্ল্যাক এবং উবার ব্ল্যাক এসইউভি তে এই সেবা পাওয়া যাবে।

যেহেতু উবারের মূল কোম্পানি এটা চালু করেছে, সেহেতু আমাদের দেশে এমন সেবার চাহিদা থাকলে উবার এখানেও চালু করবে। তবে আমাদের দেশে এই সেবা পেতে হলে প্রযুক্তিগত ভাবেও আরো সমৃদ্ধ হতে হবে। কেননা আমাদের দেশের ডিজিটাল ম্যাপ এখনও ততটা উন্নত নয়। ফলে লোকেশন অনুযায়ী হুবুহু আমাদের গন্তব্যে পৌঁছা সম্ভব নয়। তাই অন্তত লোকেশন বা গন্তব্যে পৌঁছতে হলেও ড্রাইভারের সঙ্গে কথা বলার দরকার হয়। তবে যারা গন্তব্য ম্যাপ থেকে হুবুহু নির্ধারণ করতে পারেন তাদের পক্ষে কোয়াইট মোড ব্যবহার করা সহজ। দেখা যাক এদেশের সংস্কৃতি অনুযায়ী ‘কথাহীন’ সেবা কতটা গ্রহণযোগ্যতা পায়। যদি গ্রাহকের চাহিদা থাকে তবে অচিরেই ঢাকাতেও দেখা যেতে পারে কোয়াইট মোড।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৫ মে ২০১৯/ফিরোজ