ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ২৩ জুলাই ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

মাশরাফির ১৫-২০ রানের আক্ষেপ

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-১২-১১ ১০:৫৮:৫৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১২-১২ ১:০৯:৩৬ এএম
মাশরাফির ১৫-২০ রানের আক্ষেপ
Voice Control HD Smart LED

ক্রীড়া প্রতিবেদক, মিরপুর থেকে : তিন ব্যাটসম্যান পঞ্চাশ ছুঁয়েছেন, একজন ত্রিশ। কিন্তু ইনিংসগুলো বড় করতে পারেননি কেউই। শেষ দিকেও কেউ তুলতে পারেননি ঝড়। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৪ উইকেটে হারের পর তাই ব্যাটিংয়ে ১৫-২০ রান কম হওয়ার আক্ষেপ ঝরল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার কণ্ঠে।

দ্বিতীয় উইকেটে শতরানের জুটি গড়া তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিমের সামনে সেঞ্চুরির ভালো সুযোগ ছিল। কিন্তু তামিম আউট হন ৫০ রানে, মুশফিক ৬২ রানে। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে মাহমুদউল্লাহ আউট হন ৩০ রানে। সাকিব আল হাসান ৬৫ রান করলেও আউট হন তিন ওভার বাকি থাকতে। শেষ দুই ওভারে বাংলাদেশ তুলতে পারে মাত্র ৫ রান। ৫০ ওভারে তাই ২৫৫ রানের বেশি করতে পারেনি বাংলাদেশ। যেটি ওয়েস্ট ইন্ডিজ টপকে যায় ২ বল বাকি থাকতে।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বললেন, বাংলাদেশের ১৫-২০ রান কম হয়েছে, ‘মনে হয় ১৫-২০টা রান আরো বেশি হওয়া উচিত ছিল। তামিম-সাকিব ব্যাটিং করলে রান তিনশর কাছে যাওয়ার সুযোগ ছিল। যখন রিয়াদ-সাকিব ব্যাটিং করছিল, ৪১ ওভার হয়ে গিয়েছিল। আরো ৬-৭ ওভার ব্যাটিং করতে পারলে রান ২৭০-৮০ হয়ে যেত। তখন বোলারদের জন্য সুবিধা হতো।’

ফিল্ডিংয়ে একাধিক ক্যাচ মিস করেছে বাংলাদেশ। শেষ  দিকে কিমো পলের দুটি ক্যাচ ফেলেন বদলি ফিল্ডার নাজমুল ইসলাম অপু। ক্যাচগুলো নিতে পারলে ফল অন্যরকমও হতে পারত বলে মনে করেন অধিনায়ক, ‘ফিল্ডিংয়ে অবশ্যই ক্যাচ মিসের কারণে ভুগতে হয়েছে। পলের ক্যাচ দুটো পরপর মিস হয়েছে। না হলে হয়তো বা ক্রেমার রোচ আসলে স্ট্রাইক রোটেট করাটা ওদের জন্য কষ্ট হয়ে যেত।’

শেষ ৩ ওভারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দরকার ছিল ৩২ রান। ৪৮তম ওভারে বোলিংয়ে এসে প্রথম বলেই ছক্কা হজম করেন রুবেল হোসেন। এই ওভারে তিনি খরচ করেন ১০ রান। তার শেষ বলে পলের ক্যাচ ফেলেন অপু। রুবেলের এই ওভার নিয়ে মাশরাফি বললেন, ‘আজকের ওভারটা ও খারাপ করেনি। হয়তো প্রথম বলে ছয় হয়েছে। শেষ চারটি বল বেশ ভালো করেই ক্যামব্যাক করেছে। দুইটা সুযোগও তৈরি হয়েছিল। ওখানে জয়ের অবস্থা তৈরি হয়েছিল। ওর বলে ওই সময় ক্যাচটা নিতে পারলে দেখা যেত পরের বল হয়তো ডট হতো। এই ছোট ছোট মুহূর্তগুলো বোলারদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দেয়।’

শেষ দুই ওভারে ২২ রানের সমীকরণে ৪৯তম ওভারে মুস্তাফিজ খরচ করে ফেলেন ১৬ রান। তার শেষ চার বলে তিনটি চার মারেন সেঞ্চুরিয়ান শাই হোপ। শুরুতে নেমে ১৪৬ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে বাংলাদেশের জয়ের স্বপ্ন গুঁড়িয়ে দেন মূলত হোপই।

‘একশ রানের সেট ব্যাটসম্যান ছিল, এমন ম্যাচ তাই সব সময় কঠিন। মুস্তাফিজ আগের ওভারটা অসাধারণ করেছে। ওই ওভারে ১০-১২ রান হলেও আমরা ম্যাচে থাকতাম। বিশেষ করে রুবেল ওই ফিনিশটা যেভাবে করেছে ওর আত্মবিশ্বাস অনেক ভালো ছিল। কিন্তু এটা হয় আসলে। অপরপক্ষেও সেট ব্যাটসম্যান ছিল। ১৬-১৭ করে ফেলেছিল ওই ওভারটায়। কিছুটা ভাগ্যও ভালো ছিল ওদের। রানিং বিটুইন উইকেটেও ভালো ছিল তারা। সবকিছু তাদের পক্ষেই গিয়েছিল’- বলেন মাশরাফি।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১১ ডিসেম্বর ২০১৮/পরাগ

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge