ঢাকা, শুক্রবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

২৩ ভুয়া এলসিতে ৫ কোটি টাকা লোপাট, দুদকের মামলা

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-০২ ৮:৫২:০০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৭-২০ ৮:৩৪:৫১ পিএম
২৩ ভুয়া এলসিতে ৫ কোটি টাকা লোপাট, দুদকের মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক : জালিয়াতির মাধ্যমে ২৩টি ভুয়া ইনল্যান্ড লেটার অব ক্রেডিটের (আইএলসি) বিপরীতে পণ্য রপ্তানির নামে বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক হতে প্রায় ৫ কোটি টাকা আত্মসাতের দায়ে দুই ব্যাংক কর্মকর্তাসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর পল্টন থানায় দুদকের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ জয়নাল আবেদিন বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য বিষয়টি জানিয়েছেন।

মামলার আসামিরা হলেন- সোনালী ব্যাংকের আগারগাঁও শাখার এক্সিকিউটিভ অফিসার মো. মোসলেম, মো. আবুল কালাম মাতুব্বর, মেসার্স গ্রিন প্রিন্টার্সের মালিক মো. আবুল হোসেন ও এএইচবি টেক্সটাইলসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আশরাফ হোসেন বকাউল।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, আসামিরা পরস্পর যোগাসাজশে প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে ২৩টি ভুয়া আইএলসি ইস্যু করে মালামাল রপ্তানি না করে মিথ্যা ঘোষণাপত্র তৈরি করেন। ওই মিথ্যা ঘোষণাপত্র দেখিয়ে বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেডের (বিডিবিএল) প্রিন্সিপাল শাখা থেকে মোট ৪ কোটি ৯০ লাখ ৩৫০ টাকা টাকা উত্তোলনপূর্বক আত্মসাৎ করেন।

দুদক জানায়, মামলার আসামি মো. আবুল হোসেন ছোট পরিসরের স্ক্রিন প্রিন্টের ব্যবসায়ী। প্রয়োজনীয় উৎপাদন ক্ষমতা না থাকা সত্ত্বেও প্রতিষ্ঠানটির ওই স্বত্বাধিকারী সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তাদের সহযোগিতায় ২৩টি আইএলসি খোলেন। আর আইএলসির বিপরীতে কোনো মালামাল রপ্তানি না করেই বিডিবিএলে ভুয়া রপ্তানি ডকুমেন্টস দাখিল করে প্রায় ৫ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে দুদকের অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়েছে।  তাই দুদক দণ্ডবিধির ৪০৯/৪২০/১০৯ ধারা ও ১৯৪৭ সনের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় মামলাটি দায়ের করেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২ মে ২০১৯/এম এ রহমান/সাইফুল

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন