ঢাকা, শুক্রবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ইংল্যান্ডকে হারানোর সঙ্গে স্মিথকেও ফিরে পেল অস্ট্রেলিয়া

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-২৬ ৯:২৬:৫৬ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-২৬ ১০:৪৮:৪৭ এএম
ইংল্যান্ডকে হারানোর সঙ্গে স্মিথকেও ফিরে পেল অস্ট্রেলিয়া

ক্রীড়া ডেস্ক: বিশ্বকাপ এলে অস্ট্রেলিয়া কতোটা ভয়ংকর হতে পারে তা আরেকবার প্রমাণ পেল ক্রিকেট বিশ্ব।

ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল যখন ওয়ানডে ক্রিকেটে একের পর এক জয় তুলে নিচ্ছে ঠিক ওই সময়ে তাদেরকে মাটিতে নামাল অসিরা। দুটি কারণে দুই দলের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ম্যাচের দিকে চোখ ছিল সবার। প্রথমত, অস্ট্রেলিয়ার দুর্দান্ত বোলিং অ্যাটাকের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের ব্যাটিং পারফরম্যান্স এবং দ্বিতীয়ত, স্মিথ ও ওয়ার্নারের ফিরে আসা।

শনিবার সাউদাম্পটনে অসিরা দাপট দেখালে নিজেদের মতো করে। আগে ব্যাটিং করে অস্ট্রেলিয়া ৯ উইকেটে ২৯৭ রান তোলে স্কোরবোর্ডে। জবাবে ইংল্যান্ড আটকে যায় ২৮৫ রানে। ১২ রানের জয়ে প্রস্তুতি ভালোভাবেই সারল অ্যারণ ফিঞ্চের দল। তবে দলের জয়ের থেকেও তাদের বড় পাওয়া স্মিথ ও ওয়ার্নারের ফিরে আসা। বিশেষ করে স্মিথের সেঞ্চুরি তাদের জন্য ‘ক্রিসমাস গিফট’। অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক ১০২ বলে ১১৬ রান করেন ৮ চার ও ৩ ছক্কায়। ২২ গজে রঙিণ পোশাকে বেশ স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যাটিং করেছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। শটে ছিল না কোনো জড়তা, টাইমিং-প্লেসমেন্ট পারফেক্ট।



ওয়ার্নার ভালো শুরুর পর ইনিংস বড় করতে পারেননি। কিন্তু যতক্ষণ ক্রিজে ছিলেন ইংলিশ বোলারদের শাসন করেছেন ভালোভাবেই। ওপেনিং নেমে ৪৩ রান করেন ৫৫ বলে। দুই সিনিয়র ক্রিকেটারের পারফরম্যান্সের বাদে ৩০ করে রান করেন শন মার্শ ও অ্যালেক্স ক্যারি। অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইনআপের সামনে দেয়াল হতে পারেননি কোনো ইংলিশ বোলার। ৪ উইকেট নিয়ে তাদের সেরা বোলার লিয়াম প্ল্যাঙ্কেট।

ব্যাটিংয়ে ইংলিশদের সেরা জেমস ভিঞ্চ ও জস বাটলার। দুজনই পেয়েছেন হাফ সেঞ্চুরির স্বাদ। বাটলার যতটা স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যাটিং করেছেন তিনে নামা ভিঞ্চ তেমনটা পারেননি।  ৭৬ বল ৬৪ রান করেন এ ব্যাটসম্যান। বাটলার বরাবরের মতোই ছিলেন আগ্রাসী। ৩১ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কা হাঁকান উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান। এই দুই ব্যাটসম্যান বাদে বলার মতো রান করেছেন ক্রিস ওকস। ৪৪ বলে ৪০ রান করে পরাজয়ের ব্যবধান কমান এ পেস অলরাউন্ডার।

নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানোয় ইংল্যান্ডের ব্যাটিং আগের মতো জমে উঠেনি। বাটলার বাদে কেউই আগ্রাসন দেখাতে পারেননি। অন্যদিকে বেহেনড্রফ, রিচার্ডসনরা বোলিংয়ে দ্যুতি ছড়িয়েছেন ভালো করেই। ২টি করে উইকেট নিয়েছেন এ দুই ব্যাটসম্যান। খরুচে ছিলেন কোল্টার-নেইল। ৬ ওভারে ৬১ রান দেন এ পেসার।



এছাড়া স্পিনার লায়ন ও জাম্পা বোলিংয়ে ভালো করেছেন। সব মিলিয়ে বিশ্বকাপের ঠিক আগে ব্যাটিং-বোলিংয়ে নিজেদের সামর্থ্যের পূর্ণ জানান দিয়েছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৬ মে ২০১৯/ইয়াসিন

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন