ঢাকা, বুধবার, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২০ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

মুস্তাফিজ নেই, অন্যরা তো আছে : আফগান কোচ

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৯-০৩ ৪:৫৩:৪৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৯-০৩ ৬:৩০:৫৮ পিএম

চট্টগ্রাম থেকে ইয়াসিন হাসান : ক্র্যাচে ভর করে হাঁটছেন আফগানিস্তানের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ অ্যান্ডু মোলস। খুব কাছে যেতে না পারলে কখনো কখনো মোহাম্মদ নবীকে ডেকে ভুল ধরিয়ে দিচ্ছেন। কখনো রশিদ খানকে ডেকে চেয়ারে বসিয়ে করছেন আলোচনা।

বয়স হয়ে গেছে ৫৮। শরীরে বাড়তি ওজন। লড়াই করছেন ডায়াবেটিসের সঙ্গে। বাংলাদেশে আসার আগে আবুধাবিতে অনুশীলন ক্যাম্প করেছিল আফগানিস্তান দল। সেখানকার তীব্র গরমের সঙ্গে লড়াই করতে পারেননি আফগানিস্তানের ইংলিশ কোচ। ডাক্তার দেখিয়ে জানতে পারেন, গরমে পায়ে ফোসকা পড়েছে। সার্জনের কাছ থেকে তা কাটিয়ে নেন। এরপর পায়ে ব্যান্ডেজ দিয়ে উড়াল দেন বাংলাদেশের পথে।

সামনেই শিষ্যদের কঠিন লড়াই। এ লড়াইয়ের আগে তার টোটকা খুব প্রয়োজন। শিষ্যদের কাছাকাছি রাখতে ক্র্যাচ নিয়েই জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ঘোরাফেরা করছেন মোলস। অন্তর্বর্তীকালীন কোচের ভূমিকায় থাকা মোলস প্রত্যাশা করছেন শিগগিরই পাকাপাকিভাবে দায়িত্ব পেয়ে যাবেন, ‘পাঁচ বছর হলো আফগানিস্তান ক্রিকেটের সঙ্গে কাজ করছি। ২০১৫ বিশ্বকাপে জাতীয় দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। এরপর ওদের অনুর্ধ্ব-১৯, ২৩ দল ও ‘এ’ দল নিয়ে কাজ করেছি। বর্তমানে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করলেও আশা করছি শিগগিরই প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ পাব।’

মূল দায়িত্ব পেতে হলে এ সফরে তার দলের ফল অবশ্যই ইতিবাচক হওয়া চাই। মোলস প্রত্যাশা করছেন শিষ্যরা নিরাশ করবেন না তাকে। আফগানিস্তানের দলটিকে এমনিতেই বলা হয় নির্ভীক, অকুতোভয়। মোলস তাদের জন্য আদর্শ গুরু। ইংলিশ এ কোচের চোখেমুখে নেই ভয়ের কোনো ছাপ, কন্ঠে আত্মবিশ্বাস আর শরীরী ভাষায় রয়েছে আগ্রাসন, ‘আমি আসলে কোনো কিছু নিয়েই উদ্বিগ্ন নই। আমাদেরকে শুধুমাত্র প্রতিটি বিভাগে ধারাবাহিক হতে হবে। আমরা সবেমাত্র নিজেদের তৃতীয় ম্যাচ খেলতে যাচ্ছি।  নিজেদের আরো প্রচুর সময় দিতে হবে। আমরা যদি এখানে ভালো না করি, তাহলে এটা আমাদের জন্য শেখার মঞ্চ হয়ে থাকবে।’

বাংলাদেশের অন্যতম সেরা পেসার মুস্তাফিজুর রহমান চট্টগ্রাম টেস্টে নেই। তাকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। তিনি না থাকায় সফরকারী শিবির স্বস্তিতে থাকার কথা। মোলস মানছেন না এমনটা, ‘এখানে স্বস্তিতে থাকার কিছু নেই। অবশ্যই মুস্তাফিজ অসাধারণ একজন ক্রিকেটার। তার না থাকা মানে অন্যদের সুযোগ। আমরা সবাই জানি সীমিত পরিসরের ক্রিকেটের জন্য তাকে বিশ্রামে রাখা হয়েছে। সীমিত পরিসরে তার পারফরম্যান্স অসাধারণ। আমরা যখন সাদা বলের ক্রিকেটে ফিরব তখন তাকে নিয়ে ভাবব।’

নিজেদের ওপর যথেষ্ট বিশ্বাস থাকলেও আফগানিস্তান সমীহ করছে বাংলাদেশকে। বিশেষ করে বাংলাদেশের স্পিন আক্রমণ আর সাকিব আল হাসানকে সম্মান করছেন মোলস।

‘আমাদের বাংলাদেশ দলকে নিয়ে গভীর শ্রদ্ধা রয়েছে। তারা আমাদের থেকে ঊর্ধ্বে। এটা সত্য আমরা ভীত নই। তাদের স্পিনে অনেক বৈচিত্র্য রয়েছে। তাদের হোম কন্ডিশনে খেলা। অবশ্যই তারা সেই সুবিধা পাবে। সাকিব ওদের সবচেয়ে সেরা খেলোয়াড়। সাকিব বাদেও একাধিক বিশ্বমানের খেলোয়াড় আছে। সাকিবের পারফরম্যান্সের সবচেয়ে বড় উপাদান তার ধারাবাহিকতা। আমাদেরকে যদি ভালো করতে হয় অবশ্যই সাকিবের মতো ধারাবাহিক হতে হবে’- বলেছেন আফগান কোচ।


রাইজিংবিডি/চট্টগ্রাম/৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯/ইয়াসিন/পরাগ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন