ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০২ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

আতালান্তা-ভ্যালেন্সিয়ার ম্যাচ ছিল ‘বায়োলোজিক্যাল বোমা’

ক্রীড়া ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৩-২৮ ১২:১৫:৫৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৩-২৮ ৪:০১:২৫ পিএম

করোনাভাইরাস ভয়ংকর রূপ ধারনের আগে সতর্ক হয়নি অনেক দেশ। চালিয়ে গিয়েছিল নিজেদের স্বাভাবিক জীবন। তাতেই সবার অজান্তে বেড়েছে সংক্রমণ। এই তালিকায় রয়েছে ইতালি। এখন পর্যন্ত ইতালিতে আক্রান্তের সংখ্যায় প্রায় ৯০ হাজার। মৃতের সংখ্যা ৯ হাজার ছাড়িয়েছে। ইতালির বারগামো শহর রয়েছে ‘হিটলিস্টে’।

শহরের মেয়র জর্জিও গোরির দাবি, ভয়াবহ করোনার সংক্রমণ বিস্তার হয়েছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এক ম্যাচে। তার ভাষ্য, ‘আতালান্তা ও ভ্যালেন্সিয়ার ম্যাচটি ছিল ‘‘বায়োলোজিক্যাল বোমা’’।

মিলানে গত ১৯ ফেব্রুয়ারি শেষ ষোলোর প্রথম লেগে মুখোমুখি হয়েছিল আতালান্তা ও ভ্যালেন্সিয়া। মিলান থেকে হাঁটা পথ দূরত্ব বারগোমার। ওই ম্যাচে স্টেডিয়ামে উপস্থিত ছিল ৪৪ হাজার ২৩৬ জন। ইতালিতে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের চার দিন আগে হয়েছিল ম্যাচটি।

তিন সপ্তাহ পর স্পেনে ফিরতি লেগের খেলা হয় রুদ্ধদ্বার স্টেডিয়ামে এবং সেই সময় থেকেই করোনা মহামারি আকারে ছড়ায়। সান সিরোতে বেশ কয়েকজন করোনায় আক্রান্ত হন। সেই তালিকায় ছিলেন একজন স্প্যানিশ ক্রীড়া সাংবাদিকও।   

জর্জিও গোরি মার্কাকে বলেছেন, ‘ম্যাচটি ছিল ‘‘বায়োলোজিক্যাল বোমা।” তখন কী ঘটছিল তা আমরা জানতাম না। যদি ভাইরাসটি ছড়িয়ে থাকে, তাহলে সান সিরোতে যেই ৪০ হাজার দর্শক খেলা দেখেছে প্রত্যেকে আক্রান্ত হয়েছে। কেউই জানতো না যে ভাইরাসটি ইতিমধ্যে আমাদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে। দল বেঁধে সবাই খেলা দেখতে এসেছিল এবং উপচে পড়া ভিড়ে ভাইরাসটি একজনের থেকে অন্য ব্যক্তিতে চলে গেছে।’

এদিকে ইমিউনোলজিস্ট অধ্যাপক ফ্রান্সেস্কো লে ফোচে বললেন, ‘এরকম কঠিন মুহূর্তে খেলা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত পাগলামি ছাড়া কিছুই নয়। ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ার বেশ কয়েকটি কারণের একটি সেই আয়োজন। ম্যাচটি হয়েছে একমাসেরও বেশি আগে। সংক্রমণের জন্য সময়টাও প্রাসঙ্গিক। মাঠে দর্শকদের আগ্রাসন, তাদের উচ্ছ্বাস, কাছাকাছি থাকার প্রবণতা এবং তাদের উৎসবের কারণে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়েছে।’   

প্রসঙ্গত, ম্যাচে ৪-১ গোলে জয় পেয়েছিল স্বাগতিক দল।ফলে রাতভর উৎসবের নগরীতে পরিণত ছিল মিলান। পানশালাগুলোতে ছিল উপচে পড়া ভিড়। তাতে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছিল খুব সহজেই, ঘটেছিল ভাইরাসটির বিস্ফোরণ।

 

ঢাকা/ইয়াসিন