ঢাকা     শনিবার   ০৮ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭ ||  ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

ওয়েস্ট ইন্ডিজের গতিতে তছনছ ইংল্যান্ড

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:০৯, ৯ জুলাই ২০২০  

দীর্ঘ একমাসের প্রস্তুতি। অতপর ২২ গজে মুখোমুখি ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু শুরুতেই ঘরের মাঠে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে কঠিন পরীক্ষায় ফেলল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক জেসন হোল্ডার ও শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের গতির তোপে স্রেফ উড়ে গেল বেন স্টোকসের দল। সাউদাম্পটনে প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ড অলআউট ২০৪ রানে। বিশ্বের এক নম্বর টেস্ট অলরাউন্ডার হোল্ডার একাই পেলেন ৬ উইকেট। গ্যাব্রিয়েল পকেটে পুরেছেন অপর ৪টি।

৩৫ রানে ১ উইকেট নিয়ে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করেছিল ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় দিনে ৯ উইকেট হারিয়ে স্বাগতিকরা যোগ করতে পেরেছে মাত্র ১৬৯ রান। এদিকে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ হওয়ার আগে ১ উইকেটে ৫৭ রান তুলেছে অতিথিরা। ফলে দ্বিতীয় দিন শেষে ৯ উইকেট হাতে নিয়ে ১৪৭ রানে পিছিয়ে আছে ক্যারিবিয়ানরা।

ইংলিশ শিবিরে দ্বিতীয় দিন শুরুর আঘাতটি করেন গ্যাব্রিয়েল। প্রথম দিনের একমাত্র উইকেটটিও এই ৩২ বছর বয়সী পেসারের শিকার। ধীরস্থির জো ডেনলির অফস্ট্যাম্প উপচে ফেলেন ডানহাতি পেসার। আলগা শটে টাইমিংয়ে গড়বড় করেন ডেনলি। ৫৮ বলে ১৮ রান করে ফেরেন সাজঘরে। আরেক ওপেনার ররি বার্নসকেও ফেরানোর দায়িত্ব নেন তিনি। বাঁহাতি ব্যাটসম্যানকে রিভিউ নিয়ে আউট করেন গ্যাব্রিয়েল। টেস্টে হাজার রানের মাইলফলক ছোঁয়া বার্নসের ব্যাট থেকে আসে ৩০ রান।

পরের গল্প পুরোটাই হোল্ডারের। মিডল অর্ডার তছনছ করার পাশাপাশি ইংলিশদের লেট অর্ডার ব্যাটসম্যানদের টিকতে দেননি ক্যারিবীয় অধিনায়ক। টানা ৬ উইকেট নিয়ে দলকে প্রথম ইনিংসে এগিয়ে রাখার অর্ধেক কাজ করে দেন তিনি। গ্যাব্রিয়েলকে দ্বিতীয় ঘণ্টার শুরুতে বিরতিতে পাঠিয়ে নিজেকে নিয়ে আসেন হোল্ডার। তৃতীয় ওভারের প্রথম বলেই মেলে সাফল্য।

ক্রলিকে রিভিউ নিয়ে আউট করেন ডানহাতি এই পেসার। তাকে পরপর দুই চার মেরে ভালো কিছুর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ওলে পোপে। ক্রিজের ক্রস থেকে দারুণ এক ইনসুইঙ্গারে পোপেকে উইকেটের পেছনে তালুবন্দি করান ১২ রানে। ৮৭ রান তুলতেই স্বাগতিকদের ৫ উইকেট নেই। এরপরে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন ইংলিশ অধিনায়ক স্টোকস এবং জস বাটলার।

দুইজনে ৬ষ্ঠ উইকেটে গড়েন ৬৭ রানের জুটি। তবে মধ্যাহ্ন বিরতির পর এসে আবার ধস নামান হোল্ডার। প্রতিপক্ষ দলের অধিনায়ক বেন স্টোকস (৪৩), অভিজ্ঞ জস বাটলার (৩৫) ও গতিতারকা আর্চারকে (০) ফিরিয়ে ক্যারিয়ারে ষষ্ঠ বারের মতো ফাইফারের স্বাদ পান হোল্ডার। এরপর মার্ক উডকে ফিরিয়ে ক্যারিয়ার সেরা (৬/৪২) বোলিং উপহার দেন হোল্ডার। ইংলিশ কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন গ্যাব্রিয়েল। অ্যান্ডারসনকে বোল্ড করে গ্যাব্রিয়েল ইংল্যান্ডকে অলআউট করেন ২০৪ রানে।

জবাবে প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং করতে নেমে দুই ওপেনারের ব্যাটে সতর্ক শুরু পায় অতিথিরা। জন ক্যাম্পবেল ও ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট ৪৩ রানের জুটি গড়েন। তবে ২৮ রান করা ক্যাম্পবেলকে ফিরিয়ে স্বাগতিকদের কিছুটা স্বস্তি এনে দেন টেস্টে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী পেসার অভিজ্ঞ জেমস অ্যান্ডারসন। তিনে নামা শেই হোপ এরপর ব্র্যাথওয়েটকে সঙ্গ দিতে থাকেন। তবে দিনের খেলা ২০ ওভারের মতো বাকি থাকতে আলোক স্বল্পতায় দ্বিতীয় দিনের খেলা বাতিল করতে হয়। তৃতীয় দিন হোপ ৬ ও ব্র্যাথওয়েট ২০ রান নিয়ে দিন শুরু করবে।

 

ঢাকা/ইয়াসিন/কামরুল

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়