ঢাকা, শুক্রবার, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ওয়ালটন ফ্রিজের লাখ টাকায় সাজল তৌহিদুলের নতুন সংসার

জনি সোম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৩-১০ ৫:৫৪:১০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-০৪ ৬:৩৩:৫৩ পিএম
ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পাওয়ায় দারুণ খুশি তৌহিদুল মুরসালিন

জনি সোম : সদ্য বিয়ে করেছেন তৌহিদুল মুরসালিন। নতুন সংসার। তাই ধীরে ধীরে সাজানোর পরিকল্পনা করেছিলেন। শুরুতেই প্রয়োজন ছিল একটি ফ্রিজের। সাশ্রয়ী দামে সেরা মানের ফ্রিজটি কিনতে তিনি চলে যান ওয়ালটন শোরুমে। সেই ফ্রিজে কিনেই পেয়েছেন এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার। যা দিয়ে কেনা নানান পণ্যে ভরে গেছে তার নতুন সংসার।

তৌহিদুল মুরসালিনের বাড়ি সুনামগঞ্জের ধর্মপাশার আটাইশা মাছিমপুর গ্রামে। তিনি বাংলাদেশ রেলওয়েতে কর্মরত আছেন। পাঁচ ভাই ও তিন বোনের মধ্যে সবার ছোট। এক বছর আগে বাবা পাড়ি জমিয়েছেন না ফেরার দেশে। পরিবারের অন্য সদস্যরা গ্রামের বাড়ি থাকলেও চাকরির সুবাদে সদ্য বিবাহিত তৌহিদুল স্ত্রীকে নিয়ে থাকছেন মৌলভিবাজারের কুলাউড়াতে।

কুলাউড়া প্লাজার ম্যানেজার জনি ইসলাম জানান, ওই শোরুম থেকে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি কিস্তিতে ২১ হাজার টাকায় একটি ওয়ালটন ফ্রিজ কেনেন তৌহিদুল। এরপর চলমান ওয়ালটন ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-ফোর এ পণ্যটি রেজিস্ট্রেশন করে এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পান তিনি।

তৌহিদুল বলেন, নতুন সংসার একটু একটু করে সাজাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছিলাম। মাস দুয়েক আগে একটি ওয়ালটন এলইডি টিভি কিনি। এরপর সিদ্ধান্ত নিই ফ্রিজ কেনার। পুরো টাকা একসঙ্গে না থাকায় কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজটি কিনি। আর এতেই আমার কপাল খুলে যায়। পেয়ে যাই এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার।

এক লাখ টাকা দিয়ে তৌহিদুল ৩টি মোবাইল ফোন, রুটি মেকার, ওয়াটার পিউরিফায়ার, ফ্রাইপ্যান, ফুড প্রসেসর, রাইস কুকারসহ প্রায় ২৫ ধরনের ওয়ালটন হোম অ্যাপ্লায়েন্স নিয়েছেন। তার ঘর এখন ভরে গেছে ওয়ালটনের নানান পণ্যে।

 


তৌহিদুল মুরসালিনের হাতে লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার ও অন্যান্য পণ্য তুলে দেয়া হচ্ছে


সৌভাগ্যবান ক্রেতা তৌহিদুল আরো বলেন, আমি ২০১৬ সাল থেকে ওয়ালটন পণ্য ব্যবহার করে আসছি। ওয়ালটন দেশীয় ব্র্যান্ড। তারা সাশ্রয়ী দামে ভালো পণ্য দেয়। এজন্যই আমি ওয়ালটন ফ্রিজ কেনার সিদ্ধান্ত নিই। ওয়ালটন ফ্রিজ কেনাও হলো, নতুন সংসার গোছানোও হলো। ধন্যবাদ ওয়ালটন কর্তৃপক্ষকে।

গত ২৮ ফেব্রুয়ারি লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচারে কেনা পণ্যগুলো তৌহিদুলের হাতে তুলে দেওয়া হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটনের এরিয়া ম্যানেজার সুমন রায় চৌধুরী এবং স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিসহ অসংখ্য মানুষ।

ওয়ালটন সূত্রে জানা গেছে, নতুন বছর এবং ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা উপলক্ষে গত ৯ জানুয়ারি থেকে সারা দেশব্যাপী ডিজিটাল ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। এবার চলছে এই আয়োজনের চতুর্থ পর্ব বা সিজন ফোর। এর আওতায় ওয়ালটন পণ্য কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ক্রেতারা পাচ্ছেন সর্বোচ্চ এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার। আছে মোটরসাইকেল, এয়ার কন্ডিশনার, ল্যাপটপ, ফ্রিজ, এলইডি টিভি, ওভেনসহ অসংখ্য পণ্য ফ্রি পাওয়ার সুযোগ। এসব না মিললেও রয়েছে নিশ্চিত ক্যাশব্যাক। এ সুবিধা থাকবে পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত।

বিক্রয়োত্তর সেবা আরো সহজতর করতে গ্রাহকদের অনলাইন ডাটাবেজ তৈরির জন্য ডিজিটাল ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে ওয়ালটন। গত বছর ১ এপ্রিল থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত চালানো ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-১ এর আওতায় ওয়ালটন পণ্য কিনে আমেরিকা ও রাশিয়া ভ্রমণের ফ্রি বিমান টিকিট পেয়েছিলেন বেশ কয়েকজন ক্রেতা। সিজন-২ ও ৩ এ হাজার হাজার ক্রেতা ফ্রি পেয়েছেন নতুন গাড়ি, মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, টিভি, এসিসহ বিভিন্ন ওয়ালটন পণ্য।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১০ মার্চ ২০১৯/অগাস্টিন সুজন/সাইফ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন