ঢাকা, রবিবার, ৩ কার্তিক ১৪২৬, ২০ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ভাগ্যিস নিউজিল্যান্ডের একজন কেন উইলিয়ামসন ছিলেন…

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৭-০৯ ৮:২১:২৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৭-০৯ ৮:২১:২৮ পিএম

ম্যানচেস্টার থেকে ইয়াসিন হাসান : ঘরের মাঠে বিশ্বকাপের প্রথম পর্বের ম্যাচ।  প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া। ট্রেন্ট বোল্টের দুর্দান্ত বোলিংয়ে অস্ট্রেলিয়াকে ১৫১ রানে আটকে দেয় নিউজিল্যান্ড।  সহজ লক্ষ্য।

কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার একজন স্টার্ক তো ছিলেন।  বাঁহাতি পেসারের নাকানিচুবানিতে কিউইরা পথ ভুলে বসে।  ২৩তম ওভারের তৃতীয় বলে অ্যাডাম মিলনে ও টিম সাউদিকে স্টার্ক যখন আউট করলেন তখনও জয়ের থেকে ৬ রানে পিছিয়ে নিউজিল্যান্ড।  নতুন ব্যাটসম্যান বোল্ট, অপরপ্রান্তে কেন উইলিয়ামসন।  ওভারের তখনও দুই বল বাকি।  মিডল ও লেগ স্টাম্প বরাবর ডেডলি ইকর্য়ার প্রথমে ঠেকিয়ে দেন বোল্ট।  পরেরটা ওয়াইড ওয়র্কার।  বল ছেড়ে দিয়ে বোল্ট জীবন বাঁচান কিউইদের।

জয়ের জন্য তখন ৬ রান লাগত স্বাগতিকদের।  কি দুর্দান্ত উইলিয়ামসন।  কামিন্সের বলে উইকেট থেকে সরে গিয়ে উড়ালেন লং অন দিয়ে।  অসিদের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক জয় ড্যানিয়েল ভেট্টরি, কেন উইলিয়ামসদের।  পাঁচ উইকেট নিয়ে বোল্ট হয়েছিলেন নায়ক। কিন্তু ৪২ বলে ৪৫ রানের ইনিংস খেলে উইলিয়ামসন ছিলেন আনসাং হিরো।

পুরো ইনিংসের মেরামতের কাজটা করতে হয়েছে তাকেই।  শুধু ওই এক ইনিংসেই নয়, উইলিয়ামসন এমন অনেক ইনিংস উপহার দিয়েছেন যেগুলোতে নিউজিল্যান্ড জিতেছে শেষ মুহূর্তে।  হাত ফঁসকে বেরিয়ে যাওয়া ম্যাচ কিভাবে জিততে হয় তা প্রায়ই করে দেখান নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক। এবারের বিশ্বকাপেও রং ছড়িয়ে যাচ্ছেন উইলিয়ামসন।  বাংলাদেশের বিপক্ষে নিশ্চিত রান আউটে জীবন পাওয়ার পর ম্যাচ বের করে নিয়ে যান ৭২ বলে ৪০ রানের ইনিংস খেলে।  এরপর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১৩৮ বলে ১০৬ রানের ইনিংস খেলে তো প্রোটিয়াদের ডুবিয়েছেন একাই।  পরের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ধারালো বোলিংয়ের বিপক্ষে ১৫৪ বলে করেন ১৪৮ রান।

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেও দলের হাল ধরলেন উইলিয়ামসন।  মঙ্গলবার ম্যানচেস্টারে ভারতের বিপক্ষে দলের ১ রানে মার্টিন গাপটিল আউট হওয়ার পর ব্যাটিংয়ে এসে ইনিংস মেরামতের কাজ করেন।  ধীর স্থির থেকে ম্যানচেস্টারে আলো ছড়িয়ে যান ডানহাতি ব্যাটসম্যান।  উইকেটে থিতু হতে প্রায়ই সময় নেন।  কিন্তু একবার থিতু হয়ে গেলে তাকে ফেরাতে ঘাম ঝরাতে হয় বোলারদের।

২২ গজে চোখের পলকে রানের ফুলঝুরি ছোটান এ ব্যাটসম্যান।  বড় শটস খেলার পরিবর্তে স্ট্রাইক রোটেটে সব সময় মনোযোগী এ ব্যাটসম্যান। আজও ভারতের বোলারদের সামলাতে শুরুতে হিমশিম খেলেও সেট হয়ে সহজাত ব্যাটিংয়ে রান তুলে নেন।  ৭৯ বলে মাত্র ৪ বাউন্ডারিতে তুলে নেন ফিফটি।  দলের প্রয়োজন মেটাতে আগ্রাসন দেখানো শুরু করেন মাইলফলকে পৌঁছার পর।  বেশিদূর এগোতে পারেননি।  চাহালের বলে জাদেজার হাতে ক্যাচ দেওয়ার আগে করেন ৬৭ রান।

তৃতীয় উইকেটে রস টেলকে নিয়ে করেন ৬৮ রানের জুটি।  ১৪৮ ওয়ানডেতে ৬১০২ রান করা উইলিয়ামসন আজ পেয়েছেন ক্যারিয়ারের ৩৯তম হাফ সেঞ্চুরি।  দলের প্রয়োজনে আজও হাল ধরেছিলেন।  দেখার বিষয়, তার দৃঢ়চেতা ইনিংসের পর নিউজিল্যান্ডের বোলাররা ভারতের ব্যাটসম্যানদের থামিয়ে দলকে ফাইনালের টিকিট এনে দিতে পারেন কিনা।


রাইজিংবিডি/ম্যানচেস্টার/৯ জুলাই ২০১৯/ইয়াসিন/আমিনুল

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন