ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

জাপানের ফ্যাশন ওয়ার্ল্ডে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ

আব্দুল্লাহ আল মামুন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৩-২৭ ৮:২৩:৫২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-০৪ ৬:৪২:৫৭ পিএম
জাপানের ফ্যাশন ওয়ার্ল্ডে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ
Walton E-plaza

আব্দুল্লাহ আল মামুন, টোকিও (জাপান) থেকে : জাপানের টোকিওতে ‌‘ফ্যাশন ওয়ার্ল্ড টোকিও–২০১৯’ এ অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ।

বুধবার টোকিওতে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের সার্বিক তত্ত্বাবধানে এবং বাংলাদেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর সহযোগিতায় এ মেলায় বাংলাদেশি উদ্যোক্তারা অংশ নেন।

সকালে জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা মেলায় বাংলাদেশি প্যাভিলিয়নের স্টলগুলো পরিদর্শন করেন এবং ব্যবসায়ীদের সাথে কুশল বিনিময় করেন।

বাংলাদেশের ১৩টি তৈরী পোশাক ও চামড়া শিল্পপ্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য প্রদর্শন করে। মেলাটি দুই দেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যে যোগাযোগ ও ব্যবসায়িক সম্পর্ক স্থাপনে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে আশা করেছেন অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান কর্ণধাররা। মেলা চলবে ২৯ মার্চ পর্যন্ত।

জাপানে বাংলাদেশের দূতাবাস, বাংলাদেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর উদ্যোগে মেলার সেমিনার ভেন্যুতে ‘জাপানের বাজারে বাংলাদেশের পোশাক খাতের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ’ নিয়ে সেমিনার হয়। এতে সহযোগিতা করে জাপান এক্সটারনাল ট্রেড অর্গানাইজেশন (জেট্রো), ইউনাইটেড ন্যাশনস ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (ইউনিডো), জাপান ও টোকিও চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি, জাপান-বাংলাদেশ কমিটি ফর কমার্শিয়াল অ্যান্ড ইকনোমিক কো-অপারেশন এবং জাপান টেক্সটাইল ইম্পোর্টারস অ্যাসোসিয়েশন। প্রায় ১৩০ জন জাপানি ব্যবসায়ী সেমিনারে যোগ নেন।

সেমিনারে জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা স্বাগত বক্তব্য দেন। মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানসমূহকে ধন্যবাদ জানান তিনি। রাবাব ফাতিমা বলেন, বাংলাদেশের তৈরী পোশাক, বিশেষ করে নিটওয়্যার প্রতিষ্ঠানগুলো অত্যন্ত যত্ন সহকারে জাপানের জন্য পণ্য তৈরী করছে এবং নিটওয়্যার খাতে জাপানের এক নাম্বার রপ্তানি পণ্য হওয়ায় বাংলাদেশ গর্ববোধ করে।

তিনি জানান, ২০১৮ সালে জাপানে বাংলাদেশি পোশাক খাত রপ্তানিতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে প্রায় ৩৪ শতাংশ, যা জাপানের বাজারে সর্বোচ্চ। এশিয়ার মধ্যে জাপান আমাদের তৈরী পোশাক খাতের প্রথম রপ্তানি গন্তব্য। এই মেলা জাপানে বাংলাদেশী উন্নতমানের পণ্যসামগ্রীর বাজার সম্প্রসারণে এবং জাপান-বাংলাদেশ বাণিজ্য সম্পর্ক আরো গভীর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।

সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা করেন জাপানের ইকনোমি, ট্রেড ও ইন্ডাস্ট্রি মন্ত্রণালয়ের পরিচালক ইয়াসুজিরো মিয়াকে, ইউনিডোর শিল্প উন্নয়ন কর্মকর্তা ইকুয়ে তোশিনাগা, মারুহিসা কোম্পানির প্রেসিডেন্ট মাসাহিরো হিরাইশি এবং বাংলাদেশ দূতাবাসের পক্ষে বাণিজ্যিক কাউন্সেলর মোহাম্মদ হাসান আরিফ। আলোচকরা বাংলাদেশে বিনিয়োগের উপযুক্ত পরিবেশ, বাংলাদেশ সরকার প্রদত্ত সুযোগ-সুবিধাসমূহ এবং জাপানে বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের সম্ভাবনা বিশ্লেষণ করেন এবং বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশকে বেছে নেওয়ার আহ্বান জানান।

প্রশ্নোত্তর ও বিজনেস নেটওয়ার্কিং পর্বের মাধ্যমে সেমিনার সমাপ্ত হয়।



রাইজিংবিডি/টোকিও/২৭ মার্চ ২০১৯/আব্দুল্লাহ আল মামুন/রফিক

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন