ঢাকা, বুধবার, ৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

মঞ্চ ভাঙচুর : কনসার্টে অংশ নেওয়া নিয়ে দোলাচল

আবু বকর ইয়ামিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৪-১৩ ৩:০০:২৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৪-১৩ ৩:০০:২৪ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : পয়লা বৈশাখ উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত কনসার্টের মঞ্চ ভাঙচুর ও আগুন দেওয়ার ঘটনায় এটি বাতিলের গুঞ্জন উঠেছে।

ওই ঘটনার পর নিজেদের সব মালামাল গুছিয়ে নিয়েছে কনসার্টের প্রধান স্পন্সর মোজো। তারা বলছেন, ইতোমধ্যে দুইবার হামলার ঘটনা ঘটেছে। আরো ঘটতে পারে বলে আমাদের আশঙ্কা রয়েছে। তাই আমরা চলে যাচ্ছি।

তবে কনসার্ট বাতিল করা হয়নি বলে জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাংস্কৃতিক সম্পাদক আসিফ তালুকদার।  তিনি বলেন, কনসার্ট হবে। ভীতি সৃষ্টি হওয়ায় মোজো কোম্পানি তাদের জিনিসপত্র গুছিয়ে রেখেছে। অন্য কিছু না।  এটা সকল শিক্ষার্থীর অনুষ্ঠান, বাতিল হওয়ার প্রশ্নই আসে না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. গোলাম রব্বানী বলেন, কনসার্ট হবে কি হবে না, এ ব্যাপারে প্রশাসন সিদ্ধান্ত নেবে না। ছাত্ররা সমঝোতা করে কনসার্ট করতে পারে। তারাই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে।

শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে দুর্বৃত্তরা কনসার্টের জন্য তৈরি মঞ্চ, মোজোর কয়েকটি ফ্রিজ ও কনসার্টস্থলের আশপাশের এলাকায় স্থাপন করা মোজোর বিজ্ঞাপনী ব্যানার ভাঙচুর করে। পাশাপাশি বেশকিছু ব্যানার ও ফেস্টুনে অগ্নিসংযোগ করা হয়।

ছাত্রলীগের এক পক্ষের নেতা-কর্মীরা এ ঘটনার জন্য সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের অনুসারীদের অভিযুক্ত করেছেন। তাদের অভিযোগ, স্যার এ এফ রহমান হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান তুষার এবং বঙ্গবন্ধু হল ছাত্রলীগের সভাপতি আল আমিন রহমানের নেতৃত্বে এ ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে।

তবে মাহমুদুল হাসান তুষার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমি ঘটনার সঙ্গে জড়িত না। আমি ঘটনার সময় ক্যাম্পাসে ছিলাম না। ওই সময় আমি ক্যাম্পাসের বাইরে ছিলাম।’

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৩ এপ্রিল ২০১৯/ইয়ামিন/রফিক