ঢাকা, রবিবার, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৭ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

পাহাড়ে কাঁঠালের ভালো ফলন

মামুন চৌধুরী : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৪-০৩ ৭:১২:৫০ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৪-০৩ ৭:৪৪:৪৬ এএম

পাহাড়, বনাঞ্চল ও হাওর অধ্যুষিত হবিগঞ্জ জেলায় এ বছর ফলের রাজা কাঁঠালের আশানুরূপ ফলন হয়েছে। চৈত্র মাস চলছে। পাহাড়ে গাছে গাছে ঝুলছে ছোট কাঁঠাল। জ্যৈষ্ঠ মাসে পাকা কাঁঠালের ঘ্রাণ মিলবে পাহাড়ে।

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ, চুনারুঘাট, মাধবপুর ও বাহুবল উপজেলার পাহাড়ি এলাকায় কাঁঠালের বাগান রয়েছে। এ সব উপজেলায় বাড়ির আঙিনা আর অনবাদী জমিতে কাঁঠাল গাছের ছড়াছড়ি।

এ সব কাঁঠাল কাঁচা বা আধাপাকা অবস্থায় জেলার সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার বাহুবল উপজেলার মুছাই ও চুনারুঘাট উপজেলার চন্ডিছড়া বাজারে নিয়ে যায় স্থানীয় চাষিরা। পাইকাররা মুছাই থেকে ট্রাকভর্তি করে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যায়।

কয়েক বছর ধরে কিছু পরিমাণে কাঁঠাল যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, সৌদি আরবসহ বিভিন্ন দেশে পাঠানো হয় বলে কৃষিবিভাগ সূত্রে জানা গেছে। তবে এ বছর করোনা পরিস্থিতিতে রপ্তানি নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

হবিগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, এ বছর জেলায় কাঁঠালের বাম্পার ফলন হয়েছে।

চুনারুঘাটের জাম্বুরাছড়ার বাগান মালিক শহীদ মিয়া, নবীগঞ্জের দিনারপুরে কাজল মিয়া, বাহুবলের রশিদপুর পাহাড়ি এলাকার আমির উল্লা, নূরুল ইসলাম, আব্দুল মান্নান, আছমত মিয়া জানান, তাদের বাগানে সহযোগী ফসল হিসেবে কাঁঠাল রয়েছে। কাঁঠাল গাছের আলাদা যত্ন নিতে হয় না বলে এর পেছনে খরচ নেই।

হবিগঞ্জ শহরের ক্রেতা সুজন মিয়া জানান, নির্ভেজাল বিষমুক্ত কাঁঠাল ক্রয় করার জন্য প্রতি বছর মুছাই যান। এবারও যাবেন।

বাহুবল উপজেলার পূর্ব ভাদেশ্বর পুকুরপাড় গ্রামের সাইদুল ইসলাম জানান, ফয়জাবাদের পাহাড়ি টিলায় ১৮০০ একর জমিতে তাদের কাঁঠাল বাগান রয়েছে। এর ফলনে খরচ নেই বললেই চলে। সঙ্গে লিচু, লেবু, আনারস চাষ হচ্ছে।

তিনি জানান, পাইকাররা গাছের কাঁচা কাঁঠাল ক্রয় করে রাখছেন। এতে বেশি মুনাফা পাবেন।

হবিগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপপরিচালক (শস্য) কৃষিবিদ মো. জালাল উদ্দিন বলেন, কাঁঠাল গাছের পাতা থেকে শুরু করে কাঁঠালের প্রতিটি অংশ খাওয়ার উপযোগী। এটি অন্যান্য ফলের তুলনায় লাভজনক।

হবিগঞ্জের পাহাড়ি এলাকার মাটি কাঁঠাল চাষের জন্য বেশি উপযোগী বলে জানান তিনি।

 

ঢাকা/বকুল

       
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : হবিগঞ্জ, সিলেট বিভাগ