ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০২ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

প্রাথমিকের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে রিকভারি প্ল্যান

আবু বকর ইয়ামিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৫-১৯ ৯:৪৭:৩০ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৫-২০ ৭:২৭:১০ এএম

করোনাভাইরাসের কারণে গত ১৮ মার্চ থেকে টানা দুই মাস বন্ধ রয়েছে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এতে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার ক্ষতি পুষিয়ে নিতে টেলিভিশনের মাধ্যমে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে সরকার। কিন্তু এর পরও অনেক শিক্ষার্থী টেলিভিশনে পাঠদান নিতে পারছে না বলে জানা গেছে। তাই এসময়ের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে ছুটি পরিবর্তী প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রম কীভাবে চলবে, তার একটি পরিকল্পনা তৈরি করছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এটাকে রিকভারি প্ল্যান হিসেবে উল্লেখ করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেন রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘আমরা গত ৭ এপ্রিল থেকে সংসদ টেলিভিশনের মাধ্যমে পাঠদান কার্যক্রম পরিচালনা করছি। তবে এর পরেও অনেক জায়গায় টেলিভিশনে পাঠদান করা যাচ্ছে না। কারণ সবার সেই সাপোর্ট নেই। তাই ছুটি পরবর্তী পরিস্থিতিতে আমরা কীভাবে শিক্ষার্থীদের পাঠদান কার্যক্রম চালিয়ে নেওয়া যায়, সেটার জন্য একটা রিকভারি প্লান তৈরি করছি।

‘এই রিকভারি প্লান পরিস্থিতি অনুযায়ী দুইভাবে পরিচালনা পরিচালনা করা হবে। যদি ছুটি আর বাড়াতে না হয়, তাহলে এক ধরনের পরিকল্পনা। আবার যদি ছুটি বাড়াতে হয়, তাহলে আবার ভিন্ন পরিকল্পনা। আমরা ইতোমধ্যে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরকে নির্দেশনা দিয়ে দিয়েছি।’

সচিব বলেন, স্কুল খুললে প্রথম দেখতে হবে শিশুদের সেফটি এবং নিরাপত্তার বিষয়টি। তাদের হাইজিনের বিষয়টিকে খুব গুরুত্ব সহকারে দেখা হবে। এর জন্য প্রত্যেক প্রতিষ্ঠান প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তাছাড়া পাঠদানের ক্ষেত্রে পরিবর্তন আসবে। যেহেতু দীর্ঘদিন ধরে প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে, সেহেতু প্রতিষ্ঠান শ্রেণি কার্যক্রম কীভাবে পরিচালিত হবে, সিলেবাস কীভাবে মেইনটেইন করা যাবে, কীভাবে ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া যায়, সেগুলো বিবেচ্য হবে।

এছাড়া আরও কিছু পরিকল্পনার কথা জানান সচিব। এর মধ্যে রয়েছে- বর্তমান পরিস্থিতিতে বাচ্চাদের যে ভীতি তৈরি হয়েছে, সেটি দূর করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ঝরে পড়ার হার আমরা প্রায় ১৭ শতাংশে নামিয়ে আনছিলাম। সেটি আবার বেড়ে যাওয়ার শঙ্কা রয়েছে। তাই স্কুল খোলার সঙ্গে সঙ্গে ঝরে পড়ার হার রোধে ধারাবাহিকতা রক্ষায় আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে।

এক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক সাফল্যের বিষয়গুলোও বিবেচনায় থাকবে বলে জানান তিনি।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আমাদের স্কুল কীভাবে পরিচালিত হবে, পাঠদান, শিশুর স্বাস্থ্য, হাইজিন, ভীতি দূর করাসহ নানাবিধ পরিকল্পনা রয়েছে। ঝড়ে পড়ার হার রোধের ধারাবাহিকতা যাতে অব্যাহত থাকে, শিক্ষকদের পাঠদান প্রক্রিয়া কেমন হবে, এসব নিয়ে আমাদের রিকভারি প্ল্যান।



ঢাকা/ইয়ামিন/সাজেদ