ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ভারতীয়কে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, বিব্রত সেই কালাম

রাহাত সাইফুল : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১১-০৯ ৪:৪৭:৪০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১১-০৯ ৬:২৪:১৮ পিএম

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে সর্বোচ্চ সম্মানজনক পুরস্কার ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’। যে কারণে এই পুরস্কার ঘিরে সংশ্লিষ্টদের আগ্রহ এবং প্রত্যাশা একটু বেশিই থাকে। চলচ্চিত্র শিল্পের বিকাশ ও উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ পুরস্কারটি দেয়া হয়। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে পুরস্কারের জন্য চলচ্চিত্র আহ্বান করে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছিল, কেবল বাংলাদেশি নাগরিকগণ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হবেন। কিন্তু জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের তালিকায় দেখা গেছে ভারতীয় নাগরিকের নাম!

বৃহস্পতিবার তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে ২০১৭ সালের ‘ঢাকা অ্যাটাক’ চলচ্চিত্রের জন্য ‘সেরা সম্পাদক’ হিসেবে মো. কালামের নাম ঘোষণা করা হয়। এরপরেই মূলত শুরু হয় সমালোচনা। প্রশ্ন ওঠে- কীভাবে ভারতীয় একজন নাগরিক পেলেন বাংলাদেশের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার? এ প্রসঙ্গে পুরস্কারের জুরি বোর্ড ও সংশ্লিষ্ট চলচ্চিত্র প্রযোজক বক্তব্য দিয়েছেন। অন্যদিকে যাকে পুরস্কার দেয়ায় এতো সমালোচনা সেই মো. কালাম বিষয়টি নিয়ে যথেষ্ট বিব্রত বলে জানা গেছে। 

ভারতীয় নাগরিক মো. কালামের সঙ্গে রাইজিংবিডির এই প্রতিবেদকের কথা হয়। এ প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘পুরস্কারের জন্য আমার নাম ঘোষণা করায় সত্যিই আমি আনন্দিত! কারণ পুরস্কার সবসময়ই আনন্দের। পুরস্কার ঘোষণা হওয়ার পর লেখালেখি হচ্ছে- এ নিয়ে আমি বিব্রত। কিন্তু আমার সঙ্গে কথা বলে এটা করা হয়নি। আমি জানতাম না। আমি নিয়মটাও জানি না। আমিও চাই, বাংলাদেশের নিয়মানুযায়ী পুরস্কার দেয়া হোক। আমি মনে করছি, আমার কাজের স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। আমরা অনেক কষ্ট করে সিনেমাটি নির্মাণ করেছি। একজন শিল্পীর কাছে কাজের স্বীকৃতি অনেক বড় পাওয়া।’

পুরস্কারের জুরি বোর্ডের সদস্য ও চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার গণমাধ্যমে বলেছেন, ‘প্রযোজক প্রতিষ্ঠান আবেদনের তালিকা দেয় পুরস্কার কমিটির কাছে। তারা কেন ভারতীয় নাগরিকের নাম দিয়েছে? আমরা বিচারের সময় বুঝতে পারিনি তিনি ভারতীয়। যেহেতু অভিযোগ উঠেছে তাই এই ভুল খতিয়ে দেখা হবে। সামনের যেকোনো কার্যদিবসে এ বিষয়ে মিটিং করে নতুন সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এ ক্ষেত্রে যিনি দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন তাকে হয়তো এই পুরস্কার প্রদান করা হতে পারে।’

এ প্রসঙ্গে ‘ঢাকা অ্যাটাক’ সিনেমার প্রযোজক সানী সারোয়ার বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে পুরস্কারের তালিকায় কালামের নাম দেখে আমিও অবাক হয়েছি! আবেদনের তালিকায় আমাদের সিনেমার ‘টুপটাপ’ গানটির সুরকার অরিন্দমের নামের পাশে ‘ভারতীয়’ শব্দটি লেখা ছিল। কিন্তু মো. কালামের নামের পাশে সেটা ভুলবশত লেখা হয়নি। তার ঠিকানা ও ফোন নম্বরও ভুল হয়েছিল। এমন ঘটনায় আমি দুঃখ প্রকাশ করছি। আমি জানি কেবল বাংলাদেশি নাগরিকই জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হন। আশা করবো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জুরি বোর্ড নতুন কোনো সিদ্ধান্ত নেবেন।’

ভারতীয় নাগরিক মো. কালাম বাংলাদেশের ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছাড়াও ‘পোড়ামন-২’, ‘দহন’সহ বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্র সম্পাদনা করেছেন। তার সম্পাদিত কলকাতার চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘বস’, ‘খোকা-৪২০’, ‘খোকাবাবু’, ‘বিন্দাস’, ‘প্যান্থার’, ‘কিডন্যাপ’, ‘শেষ থেকে শুরু’।


ঢাকা/রাহাত সাইফুল/তারা

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন