ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ চৈত্র ১৪২৬, ০৯ এপ্রিল ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

‘বাংলাদেশের মতো ভালোবাসা, আপ্যায়ন আর কোথাও নেই'

রাহাত সাইফুল : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১১-২৭ ৯:১২:০৩ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১১-২৮ ১০:০২:৩৩ এএম

ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা দেব। বাংলাদেশেও তার জনপ্রিয়তা তুঙ্গে।

আগামী ২৯ নভেম্বর দেব অভিনীত ও প্রযোজিত ‘পাসওয়ার্ড’ সিনেমাটি বাংলাদেশে মুক্তি পাবে। সিনেমার প্রচারের জন্য মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা এসেছেন দেব। বাংলাদেশ-ভারতের যৌথ প্রযোজনার সিনেমায় অভিনয় করলেও বাংলাদেশের সিনেমায় প্রথমবার নাম লেখালেন এই অভিনেতা।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি অভিজাত ক্লাবে নতুন সিনেমা ‘মিশন সিক্সটি’র নাম ঘোষণা করেন দেব। এ সময় দেবের সাক্ষাৎকার নেন রাইজিংবিডির বিনোদন প্রতিবেদক রাহাত সাইফুল। 

রাইজিংবিডি : বাংলাদেশে এসে কেমন লাগছে?

দেব : খুব ভালো লাগছে। বাংলাদেশ আমার দ্বিতীয় বাড়ি- কথাটি আমি সবসময়ই বলে এসেছি এবং বিশ্বাস করি। এদেশের মানুষ যে কতটা ভালো, কতটা আপ্যায়ন করে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এমন নয় যে, আমি বাংলাদেশে এসেছি বলে এটা বলছি। শুটিংয়ের মাধ্যমে কিংবা বিভিন্ন দেশে ঘুরতে গিয়ে বুঝেছি। বাংলাদেশের মত আপ্যায়ন কিংবা ভালোবাসা পৃথিবীজুড়ে আর কোথাও নেই।

রাইজিংবিডি : এপার বাংলায় আপনার জনপ্রিয়তা রয়েছে- কখনো  বুঝতে পেরেছেন?

দেব : এখানে এসে অনেক ভালোবাসা পেয়েছি। আমি যতটা না পশ্চিম বঙ্গে জনপ্রিয়, তারচেয়ে বেশি জনপ্রিয়তা এবং ভালোবাসা পেয়েছি বাংলাদেশে। আমার সিনেমা এখানে রিলিজ হোক বা না হোক, আমার প্রতি এই ভালোবাসার জন্য সবার কাছে আমি কৃতজ্ঞ।

রাইজিংবিডি : সিনেমা মুক্তির এক মাস পরে সাফটা চুক্তির মাধ্যমে সিনেমা আমদানি করা হয়। বিষয়টি কীভাবে দেখছেন?

দেব : আমরা এখনো কেন দুই বাংলায় একসঙ্গে একই তারিখে সিনেমা মুক্তি দিতে পারছি না! এখন সময় এসেছে দুই বাংলা এক হওয়ার। আমাদের ইন্ডাস্ট্রি বাঁচানোর জন্য দুই বাংলাকে এক হতে হবে। এখন বুড়ো আঙ্গুলের তলায় চ্যানেল চলে এসেছে। যার যেটা ইচ্ছে হচ্ছে সেই চ্যানেল দেখছে। নিজেদের ঐতিহ্য ধরে রাখতেই আমাদের এক হতে হবে। এটা আমাদের বাঙালিয়ানার লড়াই। আমরা দুই বাংলা যখন এক হয়ে কাজ করব তখন আমরা অনেক কিছুই নিয়ন্ত্রণে আনতে পারব। যারা বিভিন্ন প্লাটফর্ম কিংবা ইউটিউব বা বিভিন্ন সাইটে ছবি দেখছেন তাদের আমরা আয়ত্বে আনতে পারব যখন আমরা দুই বাংলা এক হয়ে ভালো কাজ করব, ভালো চলচ্চিত্র নির্মাণ করব।

রাইজিংবিডি : হঠাৎ করে বাংলাদেশের সিনেমায় নাম লেখালেন কেন?

দেব : আমি অনেকদিন ধরেই চাইছি বাংলাদেশের হয়ে কাজ করতে, বাংলাদেশের সিনেমায় কাজ করতে। আমি চাই, বাংলাদেশেও যেন আমার কিছুটা হলেও অবদান থাকে। সেই সুযোগ এবার এসেছে। আগামীতে আমি সম্পূর্ণ বাংলাদেশি একটি সিনেমায় কাজ করতে যাচ্ছি। এরই মধ্যে  সিনেমার নামও চূড়ান্ত হয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত এর নাম রাখা হয়েছে ‘মিশন সিক্সটিন’। এটা একটা থ্রিলার চলচ্চিত্র। শুধু কলকাতা থেকে আমি একাই থাকছি, বাকি সব বাংলাদেশের। শুটিং হবে বাংলাদেশ ও ভারতে। আগামী বছর জানুয়ারির মাঝামাঝি সিনেমার শুটিং শুরু হবে। সব ঠিক থাকলে আগামী রোজার ঈদে সিনেমাটি মুক্তি পাবে।

রাইজিংবিডি : ‘পাসওয়ার্ড’ নামে একটি সিনেমা বাংলাদেশে কয়েকদিন আগে মুক্তি পেয়েছে। এরপর আবার একই নামে আরেকটি সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে। বিষয়টি দর্শক কীভাবে নেবে বলে মনে করছেন? 

দেব : আমি যখন ‘পাসওয়ার্ড’ সিনেমার কাজ শুরু করি তখন ঢাকায় শাকিব এই নামে সিনেমা শুরু করেনি। বিষয়টি আমার জানা ছিল না। আমার সিনেমাটিও যে বাংলাদেশে মুক্তি দেব এমন কোনো পরিকল্পনাও ছিল না। যাই হোক, এই দেশের মানুষ আমার সিনেমা দেখবে বলে আশা করছি। আমার সিনেমার গল্প সম্পূর্ণ আলাদা। আশা করি, কোনো জটিলতা থাকবে না। আমি চাই, দর্শক হলে গিয়ে সিনেমাটি দেখুক।

রাইজিংবিডি : আমরা যতদূর জানি, কলকাতায় এই সিনেমা আশানুরূপ সফলতা পায়নি। আপনি কেন মনে করছেন বাংলাদেশে এই সিনেমা  সাফল্য পাবে?

দেব : আমি এখনো বলিনি এই সিনেমা বিশাল বড় সাফল্য পাবে। একজন পরিচালক-প্রযোজক চেষ্টা করেন দর্শকদের হলে নিতে। ‘পাসওর্য়াড' সিনেমাটি বানিয়েছি একটাই কারণে।  যখন ‘বাহুবলি' সিনেমা দেখি তখন আমার খুব কষ্ট হয়। অন্য ভাষার সিনেমা যখন দেখি তখন দেখবেন আমরা অনেকটাই পিছিয়ে আছি। সবসময় সাকসেস নিয়ে ভাবলে হবে না। আমরা একটু সাহস না করলে একই জায়গায় থেকে যাব। আগে দর্শক হলে এসে সিনেমাটি দেখুক তারপর বিচার করুক সিনেমাটি ভালো না মন্দ। আমার অনেক সিনেমা মনে হয়েছে ভালো হয়নি, কিন্তু সেটা বক্স অফিসে বাম্পার সাফল্য এনে দিয়েছে। সব সিনেমার বিচার যদি বক্স অফিস দিয়ে হয় জীবনে কেউ আগাতে পারবে না।

রাইজিংবিডি : আপনার সঙ্গে রুক্মিনীর প্রেমের গুঞ্জন আছে। আসলে বিষয়টা কী?

দেব : আপনারা যেহেতু বলছেন বিষয়টি গুঞ্জন, তাহলে গুঞ্জনই।


ঢাকা/ইভা/তারা