ঢাকা, রবিবার, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৩১ মে ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

রূপচান সচেতন, আপনি?

মুজাহিদ বিল্লাহ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৩-৩১ ৬:১৯:২৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৩-৩১ ১০:১৬:৩৭ পিএম

বিশ্বব্যাপী এখন আতঙ্কের নাম করোনাভাইরাস। এই ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সুরক্ষিত থাকার নানা উপায় খুঁজছে মানুষ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, পৃথিবীর বরেণ্য চিকিৎসক, সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই মুহূর্তে আমাদের কী করণীয়। আমাদের কীভাবে চলতে হবে।

শহর থেকে শুরু করে গ্রাম- প্রতিটি মানুষকে ঘরে থাকতে উৎসাহিত করা হচ্ছে। নিরাপত্তার জন্য হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক,  হ্যান্ড গ্লাভস ব্যবহার করতে বলা হচ্ছে। অনেকে সেগুলো অনুসরণ করছেন। তবে অনেকেই নিয়ম মেনে ঘরে থাকছেন না। আবার অনেককে জীবিকার প্রয়োজনে ঘর থেকে বেরুতেই হচ্ছে। নিম্নবিত্তের এছাড়া উপায়ই বা কী? রূপচান এ দলেরই একজন খেটে খাওয়া মানুষ।

শেরপুর জেলার নকলা হলপট্টি মোড় এলাকায় রিকশা চালান তিনি। মহামারির এই দুর্যোগ উপেক্ষা করে শহরের অন্য রিকশাচালকদের মতোই রিকশা নিয়ে বেরিয়েছেন তিনি। উদ্দেশ্য দিনের সংসার খরচটা অন্তত তুলে আনা। তাই বলে নিজের নিরাপত্তার কথা ভুলে যাননি রূপচান।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে তিনি  পিপিই  (পার্সোনাল প্রটেকশন ইক্যুইপমেন্ট), মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস তো বটেই হেলমেট পরে গত কয়েকদিন রিকশা চালাচ্ছেন। রূপচানের ভাষায় এ হলো ‘ডবল প্রটেকশন’।

দেশজুড়ে যখন পিপিই সংকট তখন একজন রিকশাচালকের শরীরে পিপিই দেখে অনেকেই অবাক হচ্ছেন। যেখানে হাসপাতালের চিকিৎসক-সেবিকারা  পিপিই পাচ্ছেন না তখন রূপচান পিপিই কোথায় পেলেন? এ প্রশ্নের জবাবে রূপচান বলেন, ক্যান! আমি ঢাকায় গার্মেন্টস-এ চাকরি করতাম। আসার সময় একটা (পিপিই) নিয়া আসছি। 

এরপর রূপচান এই প্রতিবেদককে উল্টো প্রশ্ন করেন, সবাই পরতে পারলে আমি পরলে দোষ কি?

 

ঢাকা/মারুফ/তারা