ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ মাঘ ১৪২৬, ২১ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

ফুঁসছে হংকং

শাহেদ হোসেন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৬-১২ ১১:২৯:২২ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৬-৩০ ৩:২৯:২২ পিএম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : অপরাধী প্রত্যাবাসন বিলের প্রতিবাদে ফুঁসছে হংকং। বুধবার লক্ষাধিক বিক্ষোভকারী সরকারি ভবনগুলো ঘিরে থাকা সড়কে অবস্থান নিয়েছে। এর ফলে শহরের অর্থনৈতিক কেন্দ্রস্থলটি অচল হয়ে পড়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, বিক্ষোভকারীদের অধিকাংশই তরুণ যাদের পরনে রয়েছে কালো পোশাক। তারা হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি ল্যামের দপ্তরের কাছে পূর্ব-পশ্চিমমুখী লাং উ সড়কে ও এর আশপাশে জড়ো হয়েছে। ওই এলাকায় মোতায়েন করা কয়েক’শ দাঙ্গা পুলিশ মোতানে রয়েছে। পুলিশের কর্মকর্তারা বিক্ষোভকারীদের অগ্রসর না হওয়ার জন্য সতর্ক করেছেন। পার্লামেন্টমুখী বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ার গ্যাস শেল নিক্ষেপ করেছে। বিক্ষোভকারীরাও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করেছে।

কালো মুখোশ ও দস্তানা পরিহিত এক তরুণ বলেন, ‘আইনটি প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত আমরা স্থান ছাড়ব না। ক্যারি ল্যাম আমাদের অবমূল্যায়ন করেছেন। আমরা তাকে এটি পাস করাতে দেব না।’

হংকংয়ের পার্লামেন্টে চীনপন্থী হিসেবে পরিচিত আইনপ্রণেতারা অপরাধী প্রত্যাবাসন আইনের প্রস্তাব করেছেন। আইনটিতে পলাতক অপরাধীদের বিচারের জন্য চীনে প্রত্যাবাসনের বিধান রাখা হয়েছে। সমালোচকদের দাবি, এই আইনটি চীনকে তার রাজনৈতিক বিরোধীদের হংকং থেকে বেইজিংয়ে নেওয়ার  সুযোগ করে দেবে। এতে যেমন অপরাধীরা ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হবে এবং হংকংয়ের ওপর চীনের হস্তক্ষেপের সুযোগ করে দেবে।

সোমবার বিলটি বাতিলের দাবিতে কয়েক লাখ লোক বিক্ষোভ করে। তবে এরপরও ক্যারি ল্যাম বিলটি পাশ করানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, বিলটিতে অতিরিক্ত সংশোধনী এনে এতে মানবাধিকার রক্ষার বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

বুধবার ৭০ আসনের আইন পরিষদে বহিঃসমর্পণ বিলটি নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো বিতর্ক হওয়ার কথা ছিল। তবে আইন পরিষদ এক বিবৃতিতে এটি স্থগিত করেছে।

বুধবার সকালে বিক্ষোভকারীদের সরে যাওয়ার জন্য পুলিশ আহ্বান জানালে বিক্ষোভকারীরা তা প্রত্যাখ্যান করে। তারা বিক্ষোভস্থলে খাদ্য, পানি ও চিকিৎসা উপকরণ নিয়ে এসেছে। কেউ কেউ ইটের টুকরো জড়ো করেছে। বিক্ষোভ পরিস্থিতির কারণে এইচএসবিসি এবং স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকসহ চারটি বড় আর্থিক প্রতিষ্ঠান তাদের কর্মীদের কাজের ক্ষেত্রে নমনীয় হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।


রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ জুন ২০১৯/শাহেদ/শাহনেওয়াজ