ঢাকা, সোমবার, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৮ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ইস্টার্ন ব্যাংকের পৌনে ১২ কোটি টাকা আত্মসাতে ৮ মামলা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১০-১৫ ৮:১৮:০০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১০-১৫ ৮:৫২:১৭ পিএম

নকল সিল ও প্যাডে জাল কাগজ তৈরি করে বিভিন্ন গ্রাহকের ১১ কোটি ৭৩ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ইস্টার্ন ব্যাংকের (ইবিএল) দুই ব্যবস্থাপকসহ আটজনের বিরুদ্ধে পৃথক আটটি মামলা দায়ের করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার দুদকের চট্টগ্রাম সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ মামলাগুলো দায়ের করা হয়েছে বলে সংস্থাটির জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য রাইজিংবিডিকে নিশ্চিত করেছেন।

মামলার আসামিরা হলেন- ইস্টার্ন ব্যাংকের চট্টগ্রামের নিজাম উদ্দিন রোড শাখার ব্যবস্থাপক মো. ইফতেখারুল কবির, চান্দগাঁও শাখার ব্যবস্থাপক সামিউল সাহেদ চৌধুরী, স্থানীয় ব্যবসায়ী জাকির হোসেন (বাপ্পী), মো. মাহমুদুল হাসান, আব্দুল মাবুদ, ফারজানা হোসেন ফেন্সী, আজম চৌধুরী ও খালেদ সাইফুল্লাহ।

এদের মধ্যে মো. ইফতেখারুল কবির প্রতিটি মামলার এবং অন্যরা একাধিক মামলার আসামি বলে দুদক জানিয়েছে।

মামলা এজাহার সত্রে জানা যায়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে ক্ষমতার অপব্যবহার করে জাল সিল, প্যাড ইত্যাদি তৈরি করে গ্রাহক ও ব্যাংকের মিথ্যা হিসাব বিবরণী, মিথ্যা নথিপত্র তৈরি করে বিভিন্ন গ্রাহকের কাছ থেকে চেক নিয়ে অর্থ উত্তোলন করেছেন। দুদকের অনুসন্ধানে দেখা গেছে, আটজন গ্রাহকের কাছ থেকে নেয়া চেক বিভিন্ন সময়ে নগদায়ন করে মোট ১১ কোটি ৭৩ লাখ ১৫ হাজার টাকা উত্তোলন করে আত্মসাত করেছেন আসামিরা।

দুদক দণ্ডবিধির ৪২০/৪০৯/৪৬৭/ ৪৬৮/৪৭১/৪৭৭(ক)/১০৯ ধারাসহ ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় মামলাগুলো দায়ের করেছে।

এর আগে গত ৬ অক্টোবর এফডিআরের নামে জালিয়াতির আশ্রয়ে গ্রাহকের ৮১ লাখ আত্মসাতের অভিযোগে ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেডের (ইবিএল) ব্যবস্থাপক ইফতেখারুল কবিরসহ দুজনের বিরুদ্ধে পৃথক তিন মামলা করেছিল দুদক। সংস্থাটির উপ-সহকারী পরিচালক নুরুল ইসলাম বাদী মামলা তিনটি দায়ের করেন।


ঢাকা/এম এ রহমান/রফিক

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন