ঢাকা, শনিবার, ২৭ আষাঢ় ১৪২৭, ১১ জুলাই ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

পশ্চিমবঙ্গে আটকাপড়া বাংলাদেশিদের দূতাবাসে যোগাযোগের আহ্বান

কূটনৈতিক প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৩-২৯ ৫:১৯:৫৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৩-২৯ ৫:১৯:৫৩ পিএম
ফাইল ফটো

ভারতে চিকিৎসা নিতে গিয়ে লকডাউনের কারণে আটকাপড়া বাংলাদেশিদের দিল্লিতে অবস্থিত দূতাবাসে যোগাযোগ করার জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ভারত তথা কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গে ঠিক কতজন বাংলাদেশি আটকা পড়েছেন তার পুরোপুরি হিসাব পাওয়া যায়নি।  তবে কলকাতায় অবস্থিত বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনের পক্ষ থেকে একটি প্রাথমিক তালিকা করা হয়েছে।    

উপ-হাইকমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কলকাতা ও পশ্চিমবঙ্গে আটকাপড়া নাগরিকরা যেন বাংলাদেশে ফেরার জন্য কলকাতায় অবস্থিত বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।  প্রয়োজনে হটলাইনেও তারা যোগাযোগ করতে পারেন।

কলকাতায় অবস্থিত বাংলাদেশ উপ-দূতাবাসের মুখ্য প্রেস সচিব মোফাকখারুল ইকবাল জানান, ভারতে আটকাপড়া বাংলাদেশিদের আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হচ্ছে।  বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনের পক্ষ থেকে তাদের বিশেষভাবে বৈধ উপায়ে সীমান্ত পার করে বাংলাদেশে পাঠানোর যাবতীয় ব্যবস্থা করা হবে।

পশ্চিমবঙ্গে আটকাপড়া বাংলাদেশি নাগরিকরা ৪০১২৭৫০০ নম্বরেও যোগাযোগ করতে পারেন।  সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত কলকাতায় অবস্থিত বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনে যোগাযোগ করা যাবে।

এদিকে, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম এ বিষয়ে দেওয়া এক ফেসবুক পোস্টে লেখেন, ভারতে সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ। আমরা শুনতে পাচ্ছি চিকিৎসা নিতে গিয়ে সেখানে কিছু বাংলাদেশি আটকা পড়েছেন এবং তাদের থাকতে অসুবিধা হচ্ছে। আমাদের দূতাবাস এরইমধ‌্যে একটি প্রাথমিক তালিকা প্রস্তুত করেছে, যারা এখনও জানাননি, আপনাদের অনুরোধ করছি, আপনারা একসঙ্গে কতজন, কোথায় আছেন, নাম, বয়স, পাসপোর্ট নম্বর, যোগাযোগের জন্য মোবাইল নম্বর আমাদের দিল্লিতে অবস্থিত দূতাবাসে জানান।  আমাদের দিল্লিতে দূতাবাসের টেলিফোন নম্বর 85955-52494 (অথবা মুম্বাই কনস‌্যুলেট 98331 59930. যারা এরইমধ্যে জানিয়েছেন তাদের আবার জানানোর প্রয়োজন নেই।

পূর্ণ তালিকা পেলে আমাদের পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে সুবিধা হবে। আপনাদেরকে বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনতে না পারা পর্যন্ত অন্তত আমরা চেষ্টা করবো স্থানীয় কর্তৃপক্ষ যেন আপনাদের চাহিদার বিষয়গুলো দেখভাল করেন।

তিনি আরো লিখেন, আর যারা ফিরে আসতে চান তাদেরকে আশকোনা হজক্যাম্পে এবং যারা চিকিৎসাধীন তারা কুর্মিটোলা বা অন্য হাসপাতালে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকার সম্মতি দিতে হবে।


ঢাকা/হাসান/জেডআর