ঢাকা, রবিবার, ৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৮ আগস্ট ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে সমন্বয় সেল

হাসিবুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-১২-১৯ ৬:২৯:৫৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১২-১৯ ৬:২৯:৫৬ পিএম
নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে সমন্বয় সেল
Walton E-plaza

নিজস্ব প্রতিবেদক : আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে সমন্বয় সেল গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

এই কমিটি নির্বাচনের দুদিন আগে থেকে শুরু করে নির্বাচনের পরের দিন পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে কমিশনকে অবহিত করবে। প্রয়োজনে কমিশনের নির্দেশনা মাঠ পর্যায়ে পৌঁছে দেবে।

ইসি সূত্র জানায়, জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম এ কমিটির নেতৃত্ব দেবেন।

এই কমিটিতে জননিরাপত্তা বিভাগের (স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপসচিব পদমর্যাদার নিম্নের নয়) একজন, সশস্ত্র বাহিনীর মেজর পদমর্যাদার নিচে নয় এমন একজন কর্মকর্তা, পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের পুলিশ সুপার/অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদমর্যাদার নিচে নয় এমন একজন কর্মকর্তা, বিজিবি/র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)/ আনসার ও ভিডিপি/কোস্টগার্ডের মেজর উপ-পরিচালক পদমর্যাদার নিচে নয় এমন একজন করে কর্মকর্তা এবং আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অথবা সহকারী পুলিশ সুপার পদমর্যাদার একজন কর্মকর্তা অন্তর্ভূক্ত হবেন।

এ বিষয়ে জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম  সাংবাদিকদের বলেন, ‘নির্বাচনকে সামনে রেখে আইনশৃঙ্খলা মনিটরিং সেল গঠন করা হচ্ছে। এই সেল নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি কমিশনকে অবহিত করবে। পাশাপাশি ভোটের ফলাফল প্রকাশের জন্য আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে যাতে কেন্দ্রে ডিসপ্লে'র মাধ্যমে ফলাফল দেখা যায়। সে বিষয়টিও কমিশন পর্যবেক্ষণ করবে। নির্বাচন ভবনের কন্ট্রোল রুম থেকে এসব নিয়ন্ত্রণ করা হবে।’

ইসির কর্মকর্তারা জানান, এই কমিটি নির্বাচনের দু'দিন আগে থেকে নির্বাচনের পরের দিন পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সম্পর্কে নির্বাচন কমিশনকে অবহিত করবে। এছাড়াও ভোটকেন্দ্র বা নির্বাচনী এলাকায় শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষার্থে বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর মধ্যে সমন্বয় করবে। পাশাপাশি ব্যালট পেপারসহ বিভিন্ন নির্বাচনী মালামাল পরিবহন, বিতরণ এবং ভোটগ্রহণ কাজে নিরাপত্তা বিধানের জন্য মোবাইল ও স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে নিয়োজিত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মধ্যে সমন্বয় করে রিটার্নিং অফিসার ও প্রিজাইডিং অফিসারদের সহায়তা প্রদান করবে। এই কমিটি রিটার্নিং অফিসার, জননিরাপত্তা বিভাগ, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ, পুলিশ বিভাগ ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করবে।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ করা হবে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ ডিসেম্বর ২০১৮/হাসিবুল/শাহনেওয়াজ

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge