ঢাকা, সোমবার, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

‘তারেকের সর্বোচ্চ শাস্তির জন্য উচ্চ আদালতে যাবে আ.লীগ’

রেজা পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৮-২১ ১:১৩:৩৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৮-২২ ১১:৫০:০০ এএম
‘তারেকের সর্বোচ্চ শাস্তির জন্য উচ্চ আদালতে যাবে আ.লীগ’
Walton E-plaza

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : একুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলার দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সর্বোচ্চ শাস্তির জন্য আওয়ামী লীগ উচ্চ আদালতে যাবে বলে জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বুধবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান তিনি।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমরা উচ্চ আদালতে রিট করবো। আমাদের উচ্চ আদালতে যাওয়ার সুযোগ আছে। এই হত্যাকাণ্ড যারা সংগঠিত করেছে, সেই হরকাতুল জেহাদ নেতা মুফতি হান্নানের বক্তব্য জবানবন্দিতে আছে, তারেক রহমানের নির্দেশনা মেনেই তারা সেদিন অপারেশন পরিচালনা করেছে। কাজেই এই হত্যাকান্ডের বিচার হতে হলে, এই হত্যাকান্ডের মাস্টারমাইন্ডের বিচার হওয়া উচিত।’

এ সময় ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘একুশে অগাস্ট তৎকালীন বিরোধী দলের নেতা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে প্রাইম টার্গেট করে সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশকে সেদিন রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের মাধ্যমে রক্তস্রোত বইয়ে দিয়েছিল তৎকালীন বিএনপি জামায়াত জোট সরকার। ইতিহাসে ১৫ আগস্ট ও ২১ আগস্ট-দুটি ঘটনা একই সূত্রে গাঁথা। একই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা।’

এই দুটি ঘটনার পর বিএনপি জামায়েতের সঙ্গে রাজনৈতিক কর্ম সম্পর্ক চিরদিনের মত বিনষ্ট হয়ে গেছে বলে জানান ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন“আমরা মনে করি বাংলাদেশের রাজনীতিতে সরকারি দল- বিরোধী দলের মধ্যে যে কর্ম সম্পর্ক থাকা দরকার, সেই কর্ম সম্পর্কের ভীত এই দুটি ঘটনার মধ্য দিয়ে চিরদিনের মত বিনষ্ট হয়ে গেছে। তারপরেও আমরা কিন্তু গণতন্ত্রের স্বার্থে যুগপথ আন্দোলন করেছিলাম এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা গণতন্ত্রের স্বার্থে ৫ জানুয়ারি নির্বাচনকে সামনে রেখে খালেদা জিয়াকে গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন।তাছাড়া বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বেগম খালেদা জিয়ার সন্তানের মৃত্যুর পর পুত্রহারা মাকে সান্ত্বনা দিতে বাড়িতে ছুটে গিয়েছিলেন। সেদিন কি দূর্ব্যবহার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে করা হয়েছে, এটা বাংলার মানুষ জানে।”

তিনি আরো বলেন, ‘সেদিন ঘরের দরজা বন্ধ করে সংলাপের দরজা বন্ধ করে দিয়েছিল বিএনপি। যারা বলেন বাংলাদেশের গনতান্ত্রিক রাজনীতিতে কর্ম সম্পর্কের যে অভাব রয়েছে, যে ঘাটতি রয়েছে এটার জন্য দায়ী বিএনপি। তারা একুশে আগস্টের হত্যাকান্ডের মধ্য দিয়ে যে দেয়াল তুলেছে সে দেয়াল এড়িয়ে যাওয়া অথবা ভুলে যাওয়া আমাদের কোনটাই সম্ভব নয়।’

১৫ই আগস্টের মত ২১ আগস্টের হত্যাকান্ডেরও বিচার হবে বলে আশা প্রকাশ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এই হত্যাকান্ডের বিচারিক আদালতে বিচার হয়েছে। পেপার বুক রেডি হচ্ছে, এর পর ডেথ রেফারেন্স শুনানি শুরু হবে। এখন প্রক্রিয়াগত ব্যাপার। আমাদের নেত্রী বেগম আইভি রহমানসহ ২৪টি তাজা প্রাণ হারিয়ে গেছে, তাছাড়া প্রাইম টার্গেট ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আল্লাহর অশেষ রহমতে তিনি বেঁচে গেছেন। ১৫ই অগাস্টের যেমন বিচার হয়েছে তেমনি ২১অগাস্টের হত্যাকার্ডের বিচার এই বাংলার মাটিতে হবে।’

এ সময় দেশ থেকে জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িক শক্তিকে চিরতরে নির্মূল করার শপথ নিতে আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের।


রাইজিংবিডি/ঢাকা/২১ আগস্ট ২০১৯/রেজা/জেনিস

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       
Walton AC
Marcel Fridge