ঢাকা     বুধবার   ১২ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২৮ ১৪২৭ ||  ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

পুতুলের নৌকা : দুর্যোগে বাঁচাবে প্রাণ

40 || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০২:২৮, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  
পুতুলের নৌকা : দুর্যোগে বাঁচাবে প্রাণ

বন্যাকবলিত মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিতে একটি রেস্কিউ বোটের (নৌকা) ডিজাইন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল। তাঁর প্রস্তাবকে সামনে রেখে একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়।

কার্যকর নতুন এ প্রকল্পের নাম দেওয়া হয়েছে দুর্যোগ মোকাবেলায় মাল্টিপারপাস এক্সিসাবল রেস্কিউ বোট।

এ প্রকল্পের আলোকে দুর্যোগ মোকাবেলায় ভিন্ন ধরনের রেস্কিউ বোট বা নৌকা তৈরি করা হবে। এ নৌকায় বন্যাকবলিত জনগণ তাদের মালামাল, এমনকি ঘর পর্যন্ত অন্য জায়গায় সরিয়ে নিতে পারবেন। দূর্গত এলাকার মানুষ তাদের ঘর-বাড়ি রক্ষা করতে না পারলে তা ভেঙ্গে নৌকায় করে নিরাপদে সরিয়ে নিতে পারবেন। গৃহপালিত পশু-পাখিও বহন করা যাবে বিশেষ এই নৌকায়।

প্রতিটি বোট তৈরির বাজেট ধরা হয়েছে ৪৫ লাখ টাকা। বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর সহযোগিতায় এ বোট নির্মাণ করবে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। চলতি বছরেই শুরু হচ্ছে নতুন এ প্রকল্পের কাজ। বছরে  ২০টি করে আগামী তিন বছরে মোট ৬০টি বোট নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে ভবিষ‌্যতে যদি এ ধরণের বিশেষ নৌকার আরো প্রয়োজন তাহলে এই সংখ‌্যা বাড়ানো হবে।

বিশেষ ধরণের এই নৌকার প্রতিটিতে ১০০ থেকে ১৫০জন করে বন্যাকবলিত মানুষকে উদ্ধার/বহন করা যাবে মালামালসহ। প্রাথমিক পর্যায়ে ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, চুয়াডাংগা, ঝিনাইদহ, খুলনা, কুষ্টিয়া, মাগুরা, মেহেরপুর, নড়াইল, সাতক্ষীরা, রাজশাহী, সিরাজগঞ্জ, পাবনা, বগুড়া, রাজশাহী, নাটোর, জয়পুরহাট, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নেত্রকোনা, নীলফামারী, রাজবাড়ী, শরীয়তপুর, সিরাজগঞ্জ, সুনামগঞ্জ এলাকায় দেওয়া হবে রেস্কিউ বোটগুলো।

এ বিষয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. শাহ কামাল বলেন, প্রথমে বন্যাপ্রবণ জেলায় এ নৌকা সরবরাহ করা হবে। প্রাথমিকভাবে প্রতি জেলায় একটি করে নৌকা দেওয়া হবে। নৌকার পূর্ণাঙ্গ ডিজাইন তৈরি হচ্ছে, ইঞ্জিন চালিত বড় আকারের এ নৌকায় বন‌্যা কবলিত এলাকার মানুষদের দ্রুত নিরাপদে সরিয়ে নেয়া সম্ভব হবে। সবচেয়ে বড় কথা একসঙ্গে অনেক মানুষকে এ নৌকার মাধ‌্যমে সাহায‌্য করা যাবে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান বলেন, ঘরসহ বন্যা কবলিত মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিতে নৌকার ডিজাইন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল। তাঁর প্রস্তাবকে সামনে রেখে একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এ নৌকায় বন্যা কবলিত জনগণ তাদের মালামাল, এমনকি ঘর পর্যন্ত অন্য জায়গায় সরিয়ে নিতে পারবেন। আমরা এ বিষয়ে একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছি।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯/আসাদ/নবীন হোসেন

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়