ঢাকা, শুক্রবার, ২০ চৈত্র ১৪২৬, ০৩ এপ্রিল ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

ভিভ, জয়াসুরিয়ার পাশে ভিলিয়ার্স

ক্রীড়া ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-১৮ ১০:১১:১৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-১৮ ১০:১১:১৮ পিএম

ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিংবদন্তি গ্রেট স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস। ক্রিকেট মাঠে আগ্রাসী মনোভাব ছিল যার মূল কথা। আশির দশকে বোলারদের করেছেন কচুকাটা। নব্বই দশকের মাঝামাঝিতে ক্রিকেটে আসেন লঙ্কান গ্রেট সনাথ জয়াসুরিয়া। ছিলেন পুরোদস্তুর বোলার। হয়ে উঠলেন বিধ্বংসী ওপেনার। ক্রিকেটে নিয়ে আসলেন পিঞ্চ হিটিংয়ের নতুন ধারণা। এরপরে আধুনিক ক্রিকেটের এমন চরিত্র কে?

ক্যারিয়ারের সায়াহ্ণে এসে পৌঁছেছেন দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটার এবি ডি ভিলিয়ার্স। ইতিমধ্যে শুধু প্রোটিয়া নয় ক্রিকেটবিশ্বে কিংবদন্তির পর্যায়ে নিজেকে নিয়ে গেছেন। আধুনিক ক্রিকেট বদলে গেলো তার হাত ধরে এমনটাই মনে করেন পাকিস্তানি গ্রেট ইনজামাম উল হক। পাকিস্তানের সাবেক এ খেলোয়াড় সম্প্রতি জানিয়েছেন ক্রিকেট বদলে দেয়া তিন ক্রিকেটারের কথা। তার লিস্টের প্রথমে ছিলেন আগ্রাসী ভিভ, এরপরে ওপেনিংয়ে নতুন ধারণার প্রবর্তক জয়াসুরিয়া। আর তাদের পাশে আধুনিক সময় থেকে বেছে নিয়েছেন ভিলিয়ার্সকে।

স্যার ভিভকে নিয়ে আনতর্জাতিক ক্যারিয়ারে বিশ হাজারের বেশি রান করা ইনজামাম বলেন, ‘ক্রিকেটে পরিবর্তনের হাওয়া প্রথম আনেন ভিভ। তার সময় যখন বোলারদের ভয়ে ব্যাটসম্যানরা ব্যাকফুটে খেলতো তখন তিনি দেখালেন কিভাবে সামনের পায়ে এগিয়ে খেলতে হয়। তিনি সবাইকে শিখিয়েছেন গতিময় বোলারদেরও মেরে খেলা যায়। তিনি সর্বকালের সেরাদের একজন।’

ইনজির সমসাময়িক ক্রিকেটার ছিলেন বাঁহাতি জয়াসুরিয়া। ১৯৯৬ সালে লঙ্কানদের বিশ্বকাপজয়ে এ ওপেনারের ভূমিকা ছিল অপরিসীম। শুরুতে নেমে রান বাড়িয়ে নেয়া বা প্রতিপক্ষকে চাপে ফেলার কাজে ছিলেন পারদর্শী।

লঙ্কান এ ব্যাটসম্যানেকে নিয়ে ইনজামাম বলেন, ‘ক্রিকেটের দ্বিতীয় পরিবর্তন আনেন জয়াসুরিয়া। সে প্রথম ১৫ ওভারের মধ্যে ফাস্ট বোলারদের আক্রমণ করার সিদ্ধান্ত নেয়। সে আসার আগে বাতাসে বল উড়িয়ে মারা ব্যাটসম্যানকে ভালো বলে ধরা হতো না। কিন্তু এ ধারণা পাল্টে দেন জয়াসুরিয়া।’

৩৬ বছর বয়সী ভিলিয়ার্স কিছুদিন আগে ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা করেন। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দিয়ে আবার ফেরার পরিকল্পনা তার। তবে ইতিমধ্যে ওয়ানডেতে কম বলে সেঞ্চুরি, দেড়শোর মাইলফলক নিজের করে নিয়েছেন। নিত্যনতুন বাহারি শটে রানের ফোয়ারা ছুটাচ্ছেন। তার এ ব্যাটিংশৈলীর কারণে তার নাম হয়ে ওঠে ‘মিঃ ৩৬০ ডিগ্রী’।

ভিলিয়ার্সকে বর্তমান ক্রিকেটের পরিবর্তন আনা ক্রিকেটার দাবি করে ইনজামাম আরো যোগ করেন, ‘আমার চোখে ভিলিয়ার্স ক্রিকেটকে তৃতীয়বারের মতো বদলে দেয়। বর্তমানে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি এত দ্রুত পরিবর্তন হওয়ার কারণ ভিলিয়ার্স। আগে ব্যাটসম্যানরা শুধু সোজা ব্যাটে খেলতো। সে এসে প্যাডেল সুইপ, রিভার্স সুইপ খেলা শুরু করে।’


ঢাকা/কামরুল