ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ চৈত্র ১৪২৬, ০৭ এপ্রিল ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

‘আমি এ জীবনে নতুন, আমাকে ক্ষমা করবেন’

ক্রীড়া ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-২৭ ৩:৩৬:৪০ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-২৭ ৩:৪৫:৪৯ পিএম

৬ বছর বয়সে বিষাক্ত চেরনোবিল থেকে মুক্তি পেতে রাশিয়ায় বাবার সঙ্গে রিফিউজি হিসেবে পাড়ি জমায় ছোট মারিয়া। বাবার কাছে থাকা ৭০০ ডলার নিয়ে অচেনা পরিবেশে বড় হতে থাকেন মারিয়া। কিন্তু কেন এ বেঁচে থাকা, কিসের টানে? উত্তর খুঁজে পেলেন ৭ বছর বয়সে।

সেই থেকে টেনিসের সঙ্গে বসবাস ছোট মারিয়ার। চোখ খোলার পর থেকে ক্লান্ত না হওয়া পর্যন্ত চলত মারিয়ার টেনিস মাদকতা। ছোট মারিয়ার টেনিসের প্রতি ভালোবাসার প্রতিদান দিতে কার্পণ্য করেনি খেলাটিও। ২০০৪ সালে মাত্র ১৭ বছর বয়সে উইম্বলডন শিরোপা নিজের করে নেন। হারান সেরেনা উইলিয়ামসকে। চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে রুশ সুন্দরী মারিয়া শারাপোভার নাম।

সে থেকে শুরু। এরপরে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। জিতেছেন পাঁচটি গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপা। এছাড়াও তার নামের পাশে আছে আরো ৩৬টা ডব্লিউটিএ শিরোপা। ২০০৫ সালে উঠেছেন নারী টেনিস এককে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে। ক্যারিয়ারের বিভিন্ন সময় মিলিয়ে ছিলেন ২১ সপ্তাহ। ২০১২ সালে রাশিয়ার হয়ে অলিম্পিক মেডেলও জিতেন। সে বছর ‘ফোর্বস’ ম্যাগাজিনে ‘১০০ গ্রেটেস্ট অফ অল টাইমে’ জায়গা করে নেন।’ টানা ১১ বছর সর্বোচ্চ আয় করা নারী টেনিস তারকা ছিলেন।

এরপর থেকে চোটের সঙ্গে লড়াই। টেনিস ছাড়া একদিনও ভাবতে না পারা মারিয়ার কোর্টে ফেরার যুদ্ধ। চরম অধ্যাবসায়ে কোর্টে ফিরেছেন। তবে কোর্টে চেনা মারিয়া শারাপোভা আর ফেরেনি। এরমধ্যে ২০১৬ সালে ডোপ টেস্টে তার দেহে নিষিদ্ধ উপাদান মেলডোনিয়াম পাওয়া যায়। নিষেধাজ্ঞা পান ১৫ মাসের। ২০১৭ সালে আবার ফিরেন। তবে একের পর এক চোট টেনিস কোর্ট থেকে ছিটকে দেয় ৩২ বছর বয়সী এ তারকাকে। সর্বশেষ গত ইউএস ওপেনে উইলিয়ামসের কাছে সরাসরি সেটে ৬-১, ৬-১ গেমে হেরে যান।

অবশেষে চোটের কাছে হার মেনে প্রিয় টেনিস কোর্টকে বিদায় বললেন মারিয়া শারাপোভা। ‘ভোগ ও ভ্যানিটি ফেয়ারে’ লেখা এক নিবন্ধে এ রুশ সুন্দরী জানান, কাঁধের চোটের জন্যই ছাড়তে হলো প্রিয় টেনিসকে।

টেনিস ছাড়া জীবনের মুহূর্ত কল্পনা করতে না পারা শারাপোভা প্রিয় খেলা নিয়ে বলেন, ‘টেনিস আমাকে বিশ্ব দেখিয়েছে। আমাকে জানিয়েছে এটিই আমরা জীবন।’ তাই টেনিসহীন জীবনটা মারিয়া শারাপোভার বড্ড অচেনা।

নতুন জীবনে প্রবেশের আগে বিদায়ী বার্তায় তাই আবেগি শারাপোভা বলে ওঠেন, ‘আমি এ জীবনে নতুন, তাই আমাকে ক্ষমা করবেন। প্রিয় টেনিস- আমি তোমায় বিদায় জানাচ্ছি।’

 

ঢাকা/কামরুল